রিয়াজ উদ্দিন,পেকুয়া:

পেকুয়ায় ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে ১০ টি বসতবাড়ি আগুনে পুঁড়ে ছাই হয়ে যায়। পেকুয়া দমকল বাহিনীর অগ্নি নির্বাপক দল ওই স্থানে পৌছে। তবে ফায়ার সার্ভিসের যাওয়ার পূর্বেই ১০ টি বসতবাড়ি সম্পূর্ণ ভস্মীভূত হয়েছে। ১৫ ডিসেম্বর (রবিবার) রাত পৌনে ৯ টার দিকে উপজেলার সদর ইউনিয়নের ভোলাইয়াঘোনা চরপাড়া পেকুয়া কবির আহমদ চৌধুরী বাজারের পশ্চিম পার্শ্বে এ অগ্নিকান্ড সংঘটিত হয়েছে। আগুনের লেলিহান শিখায় মুহুর্তের মধ্যে অগ্নিকান্ড সর্বত্র ছড়িয়ে পড়ে। এ সময় চরপাড়া এলাকার আবদু ছোবাহানের পুত্র আলী হোছনের, শুক্কুর মিয়ার পুত্র জমির, বদি আলমের পুত্র মোহাম্মদ হোছান, মৃত একরাম মিয়ার পুত্র বদিউল আলম, স্বামী পরিত্যক্ত হাজেরা বেগম, বদিউল আলমের পুত্র ছাবের আহমদ, মৃত নুরুজ্জামানের স্ত্রী রাবেয়া বেগম, নাজেম উদ্দিনের স্ত্রী ছকিনা বেগম, আলী হোসনের পুত্র জাহাঙ্গীর আলম ও বদিউল আলমের পুত্র শাহজাহানসহ অন্তত ১৫ টি পরিবারের বসতবাড়ি আগুনে পুঁেড় ছাই হয়ে যায়। স্থানীয় সুত্র জানায়, বৈদ্যুতিক শক সার্কিট থেকে আগুনের সুত্রপাত হয়েছে। বদিউল আলমের বাড়ি থেকে অগ্নি উৎপাত হয়েছে। মুহুর্তের মধ্যে পার্শ্ববর্তী অন্য বাড়িতে আগুন ছড়িয়ে পড়ে। স্থানীয় সমাজ পরিচালনা কমিটির সভাপতি শাহেদ ইকবাল জানায়, বদিউল আলমের বাড়ি থেকে আগুন সুত্রপাত হয়েছে। প্রচুর লোকজন জড়ো হয়ে আগুন নিয়ন্ত্রনের চেষ্টা করে। তবে অধিকাংশ বাড়ি টিনের ছালা ও বাঁেশর বেড়ার হওয়ায় আগুনের তীব্রতা ছিল ভয়াবহ। লোকজন নিকটে পৌছতে পারেনি। তিনি জানান, অন্তত ৩০/৩৫ লক্ষ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। খবর পেয়ে পেকুয়া থানার ওসিসহ পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে। অগ্নি নিয়ন্ত্রনে সহায়তা করতে কিছুক্ষন মগনামা-বানিয়ারছড়া সড়কে যানবাহন চলাচল বন্ধ করে দেয়। এ দিকে ওই সমাজ প্রতিনিধি শাহেদ ইকবাল তাৎক্ষনিক ভাবে এ ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের মাঝে খাবার ও শীত নিবারনে কম্বল বিলি করেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •