বার্তা পরিবেশক :

মেরিন ড্রাইভ সড়কের টেকনাফ লেঙ্গুরবিল এলাকায় দু’ফ্রান্স প্রবাসীর জমি দখলের চেষ্টা করেছে একটি চক্র। ওই জমির উপর থাকা পাকা সাইনবোর্ডের মালিকানা স্বত্ত¡ ও মালিকদের নাম মুছে একটি বেওয়ারিশ ব্যক্তির নাম লিখে দেয় ওই চক্রটি। ওই চক্রের সাথে একটি সরকারি কর্মকর্তাও জড়িত রয়েছে। তবে পুলিশ গিয়ে তা ভন্ডুল করে দেয়। গত ১৪ ডিসেম্বর এই ঘটনা ঘটে। এই ঘটনায় টেকনাফ উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। ফ্রান্স প্রবাসী, কক্সবাজার শহরের পেশকারপাড়া বাসিন্দা আমানী আলম রাজা এবং তার এক প্রবাসী বন্ধু এই নয় বছর আগে এই জমি কিনেছেন।

অভিযোগ মতে, ফ্রান্স প্রবাসী আমানী আলম রাজা ও তার বন্ধু আরেক ফ্রান্স প্রবাসী লক্ষীপুর জেলার রামগঞ্জ উপজেলার মৃত শামসুল হকের পুত্র আবদুল হান্নান মিলে ২০১০ সালে টেকনাফ লেংগুর বিল এলাকায় অবস্থিত ২.৪০ শতক নিষ্কন্টক জমি স্থানীয় আমিনুর রহমান কাছ থেকে কিনেন। দখল বুঝে নিয়ে সেই থেকে তারা জমিগুলো ভোগ করে আসছেন। কিন্তু হঠাৎ অনেকটা উড়ে এসে টেকনাফ মিঠাপানিছড়ার এলাকার মৌলভী ছৈয়দ হোসেন ও মোঃ আইয়ুব, লম্বরী এলাকার তৈয়ব এক সরকারী কর্মকর্তার নেতৃত্বে এক দল লোকজন ১৪ ডিসেম্বর সকালে ওই জমি দখল করতে যায়। তারা এক পর্যায়ে বিকালের দিকে ওই জমিতে থাকা পাকা সাইনবোর্ডের লিপিবদ্ধ মালিক রাজা ও তার বন্ধুর নাম মুছে ফেলে তার স্থলে ‘বিশ্বাস প্রশান্তি’ নামে এক বেওয়ারিশ ব্যক্তির নাম লিখে দেয়। এসময় মালিক পক্ষের কেয়ারটেকার বাধা দেয়ার চেষ্টা করলে জমি দখল চেষ্টাকারী ওই সরকারি কর্মকর্তা তাকে হুমকি দেন।

ফ্রান্সে থাকা আমানী আলম রাজা বলেন, ‘আমাদের জমি দখল চেষ্টার খবর পেয়ে সাথে সাথে আমি বিষয়টি টেকনাফ থানার ওসিকে অবগত করি এবং অবগত হয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে অভিযানে গেলে দখলচেষ্টাকারীরা পালিয়ে যায়। অভিযোগ পেয়ে গতকাল রোববার টেকনাফ উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ঘটনাস্থল পরিদর্শনে যান। এসময় ফ্রান্স প্রবাসী আমানী আলম রাজা ও তার বন্ধুর কেনা দলিলসহ অন্যান্য কাগজপত্র দেখেন তিনি। এসময় তিনি ওই জমি দখলচেষ্টাকারীদের মুঠোফোনে ডাকলেও তারা সাড়া দেননি বলে জানা গেছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •