রিয়াজ উদ্দিন ,পেকুয়া :

পেকুয়ায় দোকানে দুর্ধর্ষ চুরি সংঘটিত হয়েছে। এ সময় চোরের দল ওই দোকানের পিছুনের দরজা ভেঙ্গে ভিতরে প্রবেশ করে। দোকানটি থেকে নগদ টাকা ও মালামাল লুট করে। এমনকি দোকান মালিকের একটি গৃহপালিত পশু ও ৩ টি ছাগলও রাতে নিয়ে যায়। ১৩ ডিসেম্বর (শুক্রবার) দিবাগত গভীর রাতে উপজেলার টইটং ইউনিয়নের জালিয়ারচাং এবিসি সড়কের টইটং ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ের সামনে প্রধান সড়কের লাগোয়া একটি দোকানে দুর্ধর্ষ এ চুরি সংঘটিত হয়েছে। দোকানের মালিকের নাম মৌলভী নুরুল আমিন। তিনি টইটং ইউনিয়নের বটতলী মাদ্রাসা পাড়া এলাকার মৃত আবুল বশরের পুত্র। দোকান মালিক মৌলভী নুরুল আমিন জানায়, আমি একজন নিতান্ত অসহায় ব্যক্তি। পরিষদের সামনে এবিসি সড়কের নিকট একটি দোকান খুলেছি। এখানে বসে চা-নাস্তা বিক্রি করে সংসার চালায়। ২ সপ্তাহের ব্যবধানে আমার দোকানে দু’বার চুরি হয়েছে। আমি রাতে দোকান বন্ধ করে বাড়িতে চলে যায়। শুক্রবার রাতেও দোকান বন্ধ করে বাড়িতে গিয়েছিলাম। পরদিন শনিবার সকালে এসে দেখতে পায় দোকানের পিছুনের দরজা খোলা। মালামাল ও ক্যাশে সামান্য টাকা ছিল। এ সব চুরি করে নিয়ে গেছে। পার্শ্ববর্তী স্থানে একটি ছোট্ট গোয়ালঘরে একটি গরু ও ৩ টি ছাগল পালিত করতাম। চোরের দল গরু ও ছাগল ৩ টিও চুরি করে নিয়ে গেছে। জালিয়ারচাং এলাকার জসিম উদ্দিন জানায়, নুরুল আমিন আমার কাছ থেকে ৬ শতক জায়গা খরিদ করতে বায়না করেছে। জায়গা না কিনতে কয়েকজন ব্যক্তি তাকে নিষেধ করে। এটি চুরি নয়। তাকে এখান থেকে বিতাড়িত করতে এ ভাবে ক্ষতিগ্রস্ত ও হয়রানি করছে। ইউপি সদস্য আবু ওমর জানায়, আমি দোকানটি নুরুল আমিনকে ৫শ টাকায় মাসিক ভাড়ায় চায়ের দোকানের জন্য দিয়েছি। বার বার তার দোকানটিতে চুরি সংঘটিত হচ্ছে। নুরুল আমিন জানায়, আমি চেয়ারম্যান সাহেবকে বিষয়টি অবহিত করেছি। কেন হচ্ছে সেটি রহস্য বের করার জন্য আমি বলেছি।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •