মো. আশফাক উদ্দীন আরফাতঃ
বীর মুক্তিযোদ্ধা (গেজেট-২৭) ও সাবেক সেনা সদস্য (থার্ড.ইবি.আর) হাবিবুর রহমানের (প্রকাশ মেজর হাবিবের) ১৬তম মৃত্যু বার্ষিকী আজ। তিনি কক্সবাজার শহরের রুমালিয়ার ছড়ার সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে ১৯৪২ সনের ১ মে জন্ম গ্রহন করেন।
স্বাধীনতাযুদ্ধের এই বীর সন্তান ২০০৩ সালের ১৪ ডিসেম্বর নিজ বাস ভবনে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।
১৯৭১ সালের বাংলার স্বাধীনতা সংগ্রামের বীর সেনানী মুক্তিযোদ্ধা হাবিবুর রহমান বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্ব একটি সুন্দর, স্বাধীন সার্বভৌমত্ব বাংলাদেশের স্বপ্ন দেখেছিলেন। পাকিস্তানি শোষণ ও নির্যাতন থেকে মুক্তি এবং বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের ভিত্তিতে একটি স্বাধীন রাষ্ট্র গঠনের জন্য মুক্তিযুদ্ধে অংশ নিয়ে ছিলেন। তখন তার বসয় ছিল ২৮ বছর। মুক্তিযুদ্ধের পূর্বে তিনি তৃতীয় ইস্ট বেঙ্গল রেজিমেন্টে (সেনাবাহিনীতে) কর্মরত ছিলেন। তিনি কালুরঘাট সেতুর কাছে প্রতিরোধ যুদ্ধে অংশগ্রহণ করেন। কালুরঘাট পতনের পর যুদ্ধে আহত ক্যাপ্টেন হারুনকে নিয়ে ডুলাহাজারা হয়ে কক্সবাজার চলে আসেন। সাথে ছিলেন মেজর জিয়াউর রহমান, মেজর মীর শওকত আলী ও অলি আহমেদ।
মুক্তিযুদ্ধে ১নম্বর সেক্টর মেজর জিয়া পরে মেজর রফিকুল ইসলামের অধিনে তিনি যু্দ্ধ করেন। এরপর কক্সবাজারে বীর মুক্তিযোদ্ধা কামাল হোসেন চৌধুরীর নেতৃত্বে স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধাদের সংগঠিত করে প্রশিক্ষণে নিয়োজিত হন।
তিনি কক্সবাজার অঞ্চলে জয়-বাংলা বাহিনী ৭১’র প্রশিক্ষক হিসেবে গুরুত্বপূর্ন দায়িত্ব পালন করেন।

  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •