কালারমারছড়ায় একরে আড়াই কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ মূল্যের দাবিতে সভা

মহেশখালী প্রতিনিধি:
মহেশখালী উপজেলার কালারমারছড়া চারটি জমির মৌজায় সরকারী মেগা প্রকল্প স্থাপন করতে চিংড়ি প্রজেক্ট, লবণের মাঠ,ধান চাষের জমির অধিকগ্রহনের নোটিশ দেয়ায় এলাকাবাসীর মধ্যে দেখা দিয়েছে উদ্বেগ উৎকন্ঠা। ইতিমধ্যে জমির মালিকদের ৪ ধারা নোটিশ ইস্যু করেছে কোল পাওয়ার কর্তৃপক্ষ। জমির মালিকদের দাবি জমি দিবে কিন্তু নায্যমূল্য আড়াই কোটি টাকা নির্ধারণ করতে হবে সংশ্লিষ্ট প্রশাসনকে। মহেশখালী উপজেলা ন্যায্য মূল্য উদ্ধৃতি পরিষদ এর আয়োজনে অধিকগ্রহনের জমির ক্ষতিপূরণের টাকা ন্যায্য মূল্যের দাবিতে উপজেলার কালারমারছড়া ইউনিয়নের দক্ষিণ ঝাপুয়া মাদ্রাসার মাঠে (১৩ ডিসেম্বর) শুক্রবার বিকাল ৪ ঘটিকার সময় এক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
অধিকগ্রহণকৃত জমির মালিক কক্সবাজার জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহ- সভাপতি রিয়াজ মুরর্শেদের পরিচালনায় আবু তাহের চৌধুরীর সভাপতিত্বে উক্ত আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন, কালারমারছড়া ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান মীর কাসেম চৌধুরী ও আলহাজ্ব জাবের আহমদ চৌধুরী, রাজনৈতিক নেতা আলহাজ্ব এখলাছুর রহমান চৌধুরী, মৌলভী সোলাইমান, আওয়ামী লীগ নেতা মোঃ ইসহাক, নূরী হাসান আজাদ, আওয়ামী লীগ নেতা জাকের হোসাইন ও মোরশেদুল আলম, মৌলভী বদিউল আলম, মোঃ মহিম, আমান উল্লাহ, মেম্বার ইয়াছিন, বদরুল আলম ছাদেক, মোস্তাফিজুর রহমান, আলী হোছাইন, নাজেম উদ্দিন প্রমূখ। উক্ত আলোচনা সভায় অধিকগ্রহনকৃত জমির বিপুল সংখ্যাক মালিক উপস্থিত ছিলেন।
এতে বক্তরা বলেন, এদেশে উন্নয়ন দরকার আছে, তবে আমরা জমি দিতে রাজি আছি,কিন্তু জমির মূল্যে একরে আড়াই কোটি টাকা নির্ধারণ করতে হবে। দাবী না মানলে নায্যমূল্যের দাবিতে সড়কে নেমে মানববন্ধনসহ আন্দোলনের হুমকি দেন বক্তারা।
জানাগেছে, কালারমারছড়া ইউনিয়নের কালি গঞ্জ মৌজা ৬ লাখ টাকা একর প্রতি,ঝাপুয়া মৌজা ১২ লাখ টাকা, ইউনুছখালী মৌজা ১২ লাখ ও কালারমারছড়া মৌজার একাংশ ১২ লাখ টাকা। চার মৌজার ১৩শ ৯২ একর জমি অধিকগ্রহন করা হয়েছে ইতিমধ্যে। এসব জমি খতিয়ান ভুক্ত নাল জমি, লবণ, চিংড়ি ঘের ও ধান চাষের জমি। যেখান থেকে বছরের কোটি কোটি টাকা আয় করে আসছেন অত্র এলাকার বাসিন্দারা।
জমির মালিকদের দাবি সোনাদিয়া-ঘটি ভাঙ্গা খাসজমি বন্দোবস্তকৃত জমি ২ কোটি ৭০ লাখ একর প্রতি নির্ধারন করা হয়েছে। যার নাম দেওয়া হয়েছে সমুদ্র বিলাস। তবে আমাদের বাপ-দাদার খতিয়ানভুক্ত জমি কেন এত কম মূল্যে। তা একরে আড়াই কোটি টাকা করার দাবি জানিয়েছেন জমির মালিকরা।

সর্বশেষ সংবাদ

নাইক্ষ্যংছড়িতে গর্ভবতী গাভীর মাংস বিক্রি করায় অর্থ দন্ড

সাংবাদিক ইমরুলকে দেয়া কউকের লিগ্যাল নোটিশ প্রত্যাহারের দাবি

বিমানের চেয়ারম্যান হলেন সাজ্জাদুল হাসান

সরকারি গেজেটে কক্সবাজার ‘ব্যয়বহুল’ শহর

লিগ্যাল এইড আইন দেশের সর্বোত্তম আইন : জেলা জজ হাসান মোঃ ফিরোজ

ঈদগাঁওতে লোকালয় থেকে অজগর সাপ উদ্ধার

চকরিয়া পৌর এলাকায় বসানো হয়েছে ১০০টি সিসি ক্যামেরা

‘টেকনাফে চিহ্নিত মাদককারবারির গায়ে পুলিশের পোশাক’ শীর্ষক সংবাদের প্রতিবাদ

চট্টগ্রামের বিভাগীয় কমিশনার আবদুল মান্নানের সচিব পদে পদোন্নতি

গর্ভবতী গাভীর মাংস বিক্রির দায়ে ২০ হাজার টাকা জরিমানা

মাওলানা আজহারীর কাছে মুসলমান হওয়া ১১ জনকে ভারতে ফেরত

জেলা জাসদের কাউন্সিল: সভাপতি টুটুল সম্পাদক এড. কালাম

চকরিয়া পৌরসভায় ভাসমান দোকান উচ্ছেদ

ঝরেপড়া থকে সুবিধা পাচ্ছে কক্সবাজারের ৪৯৫৭ জন শিক্ষার্থী

সিনিয়র সচিব হলেন কক্সবাজারের হেলালুদ্দীন আহমদ

চট্টগ্রামের নতুন বিভাগীয় কমিশনার এবিএম আজাদ

ফ্রান্সে সাগর বড়ুয়ার একক সংগীতানুষ্ঠান

অবহেলায় যাতে একটি সম্ভাবনা ঝরে না পড়ে -ইউএনও জামিরুল ইসলাম

লামায় বৈদেশিক কর্মসংস্থানের জন্য দক্ষতা ও সচেতনতা শীর্ষক সেমিনার

টেকনাফ পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ে বিদায় ও বরণ অনুষ্ঠান