হেলাল উদ্দিন, টেকনাফ:
টেকনাফের সন্ত্রাস, মাদক বাণিজ্য নিয়ন্ত্রণ, অপহরণ ও মুক্তিপণ আদায়ের অন্যতম ক্রাইম জনপদ রঙ্গীখালীতে অভিযান চালিয়ে বিপুল পরিমাণ ইয়াবা ও অস্ত্র-গুলিসহ তালিকাভূক্ত ৮ জন মাদক কারবারী এবং সন্ত্রাসীকে আটক করেছে র‌্যাব।
সুত্র জানায়, ১৩ডিসেম্বর (শুক্রবার) ভোরে র‌্যাব-৭ এর একটি চৌকষ আভিযানিক দল গোপন সংবাদের ভিত্তিতে উপজেলার হ্নীলা ইউপির রঙ্গীখালী এলাকায় অভিযান চালিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের তালিকাভূক্ত ইয়াবা কারবারী ইয়ার মোহাম্মদের পুত্র নুর হাফেজ, দলিলুর রহমানের পুত্র ছৈয়দ আলম প্রকাশ কালু, ছৈয়দ হোসেনের পুত্র ছৈয়দ নুর, সব্বির আহমদের পুত্র মোহাম্মদ সোহেলকে আটক করা হয়। পরে আটককৃতদের স্বীকারোক্তিতে তাদের আস্তানায় তল্লাশী চালিয়ে ৮ লাখ ১০হাজার ইয়াবা, ৬টি অস্ত্র ও ৭০ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়।
র‌্যাব-৭ চট্টগ্রামের অপারেশন অফিসার এএসপি মাশেকুর রহমান জানান, দীর্ঘদিন ধরে তাদের কার্যক্রমের উপর নজর রাখার পর শুক্রবার ভোররাতে তাদের এসব অস্ত্র ও ইয়াবাসহ আটক করা হয়। তাদের বিরুদ্ধে পরবর্তী আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ শেষে থানায় সোর্পদ করার প্রস্তুতি চলছে। সংঘবদ্ধ সিন্ডিকেট চক্রের লোকজন আটকের খবরে জনমনে স্বস্থি দেখা দিলেও ফেরারী হয়ে থাকা অপর অপরাধীদের দ্রুত আইনের আওতায় আনার দাবী উঠেছে। পাশাপাশি আটককৃতদের মদতদাতা কতিপয় জনপ্রতিনিধি এবং রাজনৈতিক দলের নেতাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে জোর দাবি জানাচ্ছে সাধারণ মানুষ।

এ দিকে ভোর রাতে নব গঠিত র‌্যাব ১৫ এর একটি টহল টেকনাফ উপজেলার সদর ইউনিয়নের হাবিবছড়া গ্রামস্থ মেরিনড্রাইভ সড়কে ইয়াবা ক্রয় বিক্রয়কালে ৪ হাজার ৯৭০ পিস ইয়াবা সহ চার মাদক ব্যবসায়ী আটক করতে সক্ষম হয়। আটককৃতরা হচ্ছে হ্নীলা ইউনিয়নের লেদা এলাকার মকতুল হোছেনের ছেলে কামাল হোসেন (২৯), আক্তার হোসেন (৩২), মোঃ নুর (২০), ও আবুল হোছেনের ছেলে আব্দুল মালেক (২৬)। র‌্যাবের সহকারী পরিচালক, পুলিশ সুপার আব্দুল্লাহ মোহাম্মদ শেখ সাদী সংবাদের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করে টেকনাফ থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •