নিজস্ব প্রতিবেদকঃ টেকনাফ স্থল বন্দর হয়ে পেঁয়াজ আমাদানিতে কোন অনিয়ম, কারসাজি তদন্তে প্রমাণিত হলে দোষীদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়ার সুপারিশ করা হবে। পেঁয়াজ সিন্ডিকেটের অভিযোগের প্রেক্ষিতে কক্সবাজারের জেলা প্রশাসক কর্তৃক গঠিত তদন্ত কমিটির আহবায়ক ও অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট (এডিএম) মোহাঃ শাজাহান আলি এ কথা বলেন।

তিনি আরো বলেন, শুক্রবার (৬ ডিসেম্বর) সারাদিন টেকনাফ স্থল বন্দরের শুল্ক ও কাষ্টমস কর্মকর্তা, সিএন্ডএফ এজেন্ট, পেঁয়াজের আড়তদার, ভোক্তাসহ সংশ্লিষ্ট সকলের বক্তব্য গ্রহন করা হয়। একইসাথে পেঁয়াজ আমদানির জন্য ব্যাংকে খোলা এলসি ও অন্যান্য ডকুমেন্টের সাথে পেঁয়াজ আমদানি, সরবরাহ ও বাজারজাতকরণে সামঞ্জস্য আছে কিনা তাও খতিয়ে দেখা হচ্ছে। সরেজমিনে টেকনাফ স্থল বন্দর ও গুদাম পরিদর্শন করা হয়। এসময় কমিটির আহবায়ক এডিএম মোহাঃ শাজাহান আলি ছাড়াও সদস্য টেকনাফের ইউএনও মোঃ সাইফুল ইসলাম সাইফ, পুলিশ সুপারের প্রতিনিধি অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (উখিয়া সার্কেল) নিহাদ আদনান তাইয়ান, সদস্য জেলা বাজার মনিটরিং কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন। শনিবার (৭ ডিসেম্বর) কক্সবাজার জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে পেঁয়াজ আমদানিতে সংশ্লিষ্ট সকলের আরো বক্তব্য ও আমদানী সংক্রান্ত যাবতীয় কাগজপত্র যাচাই বাচাই করা হবে। তদন্ত শেষে কমিটি অচিরেই বিস্তারিত তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করবে বলে সংশ্লিষ্ট সুত্র সিবিএনকে নিশ্চিত করেছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •