এম.মনছুর আলম , চকরিয়া :

কক্সবাজারের চকরিয়ায় মাদরাসায় পড়ুয়া প্রথম শ্রেণীর এক শিশু ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ওই ছাত্রীকে মাতামুহুরী নদীর তীরে সবজি ক্ষেতে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করেছে হুমায়ুন কবির নামের এক যুবক। অভিযুক্ত হুমায়ুন উপজেলার পূর্ব বড় ভেওলা ইউনিয়নের আনিস পাড়ার আবদুস শুক্কুরের ছেলে। ধর্ষিত ছাত্রীর বাবা একজন প্রতিবন্ধী। এ ঘটনায় ওই ছাত্রীর চাচা বাদি হয়ে বুধবার রাতে চকরিয়া থানায় একটি মামলা (নং ৮/১৯,জিআর ৫৪২) দায়ের করেছেন। মামলায় অভিযুক্ত হুমায়ুন ছাড়াও অজ্ঞাতনামা আরো দুই সহযোগী আসামি করা হয়েছে।

মামলার এজাহার থেকে জানা গেছে, গত ১ ডিসেম্বর সন্ধ্যা সাতটার দিকে প্রলোভনে ফেলে দুই সহযোগির সহায়তায় ওই ছাত্রীকে মাতামুহুরী নদীর তীরে সবজি ক্ষেতে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করে হুমায়ুন। ওইসময় আক্রান্ত ছাত্রীর শোর-চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে আসলে অভিযুক্তরা পালিয়ে যায়।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে চকরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ হাবিবুর রহমান বলেন, আক্রান্ত ওই ছাত্রীকে কক্সবাজার সদর হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে (ওসিসি) ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় বুধবার রাতে ভিকটিমের চাচা বাদি হয়ে একটি মামলা দায়ের করেন।

ওসি বলেন, ভিকটিম অবশ্য গতকাল আদালতে জবানবন্দি দিয়েছেন। সেখানে ঘটনার ব্যাপারে ভিন্নধরণের বক্তব্য দিয়েছেন। আদালতে ভিকটিম বলেছে, তাকে ধর্ষন করা হয়নি, তবে তাঁর স্পকাতর অঙ্গে হাত দিয়েছে অভিযুক্ত। তারপরও মামলায় হওয়ায় আমরা অভিযুক্তদের গ্রেপ্তারে অভিযান শুরু করেছি।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •