কালেরকন্ঠ:

আসন্ন মিয়ানমার সফরে রোহিঙ্গা সমস্যা নিয়ে আলোচনা হবে বলে জানিয়েছেন সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল আজিজ আহমেদ। গতকাল পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেনের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাতের পর সাংবাদিকদের তিনি এ কথা জানান। সেনাপ্রধান জানান, মিয়ানমার সফরের লক্ষ্য দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক উন্নয়ন।

জানা গেছে, সেনাপ্রধান জেনারেল আজিজ আহমেদ আগামী ৮ থেকে ১৩ ডিসেম্বর মিয়ানমার সফর করবেন।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে সেনাপ্রধান বলেন, বাংলাদেশ ও মিয়ানমারের সামরিক বাহিনীর মধ্যে সহযোগিতা কিভাবে বাড়ানো যায়, সেগুলো নিয়ে আলোচনা হবে। প্রশিক্ষণ ও দ্বিপক্ষীয় অন্যান্য বিষয়ে আলোচনা হবে। তিনি বলেন, ‘‘আমাদের সম্পর্ক যে অবস্থায় আছে, তা আরো ভালো করার জন্য আলোচনা করব। যত ‘এনগেজমেন্ট’ (যোগাযোগ) বেশি হবে, ততই আমাদের সম্পর্ক ভালো হবে।’’

তিনি বলেন, ‘রোহিঙ্গা প্রসঙ্গ আসবে। এগুলো নিয়ে কী কী সমস্যা হচ্ছে, সেগুলো নিয়ে আলোচনা হবে।’

মিয়ানমার সফরের প্রেক্ষাপট জানতে চাইলে সেনাপ্রধান বলেন, ‘আমরা অনেক দেশে যাই। এটি হলো দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক উন্নয়নের উদ্যোগ।’

মিয়ানমার সফরসূচি আগে থেকেই শিডিউলে ছিল কি না জানতে চাইলে সেনাপ্রধান বলেন, ‘‘কোনো কিছু থাকে না। আগে যেমন আমরা ‘এক্সপ্রেস’ করি যে আমরা যেতে চাই। অনেক সময় অন্য দেশও ‘এক্সপ্রেস’ করে।’’

তিনি বলেন, ‘দ্বিপক্ষীয় সফরগুলো করা হয় আমাদের সম্পর্ক উন্নয়নের জন্য। আমরা যে অবস্থায় আছি তাঁর চেয়ে ভালো করতে চাই।’

‘এ ধরনের লক্ষ্য থেকেই মিয়ানমার সফর’ উল্লেখ করে জেনারেল আজিজ বলেন, ‘আমাদের দুই দেশের মধ্যে সম্পর্ক উন্নয়ন করা, আর্মি টু আর্মি এনগেজমেন্টটা আরেকটু বাড়ানো বিভিন্নভাবে, সেটা ট্রেনিংও হতে পারে, অন্য অনেক এক্সচেঞ্জ প্রগ্রাম হতে পারে।’ অন্য এক প্রশ্নের জবাবে সেনাপ্রধান বলেন, ‘মিয়ানমার নিয়ে সবারই আগ্রহ আছে।’

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •