নিজস্ব প্রতিবেদক:
দুর্যোগ মোকাবেলায় কক্সবাজারের টেকনাফের ৪টি ইউনিয়নে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটির আপদকালীন তহবিলে অর্থ সহায়তা দিয়েছে আন্তর্জাতিক উন্নয়ন সংস্থা এ্যাকশনএইড বাংলাদেশ।

বৃহস্পতিবার (৫ ডিসেম্বর) সকালে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ে এ্যাকশনএইডের পক্ষে টেকনাফের ৪টি ইউনিয়নের দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতির হাতে আর্থিক সহায়তার চেক তুলে দেন ইউএনও মো: সাইফুল ইসলাম। এসময় টেকনাফ উপজেলা চেয়ারম্যান নুরুল আলমসহ সংশ্লিষ্টরা উপস্থিত ছিলেন।

সহায়তা হিসেবে হোয়্যাইকং, হ্নীলা, বাহারছড়া এবং টেকনাফ সদর ইউনিয়নের দুর্যোগ ব্যবস্থাপণা কমিটির আপদকালীন তহবিলে ৪লাখ ২১ হাজার ১২৫টাকা করে সহায়তা দেয়া হয়। এরআগে ২৮ নভেম্বর উখিয়া উপজেলার রাজাপালং, রত্নাপালং ও পালংখালী ইউনিয়নেও এই অর্থ সহায়তা দেয়া হয়। সব মিলিয়ে ৭ ইউনিয়নের দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটির আপদকালীন তহবিলে ২৯ লাখ ৪৭ হাজার ৮৭৫ টাকার সহায়তা দিয়েছে এ্যাকশনএইড।

ত্রাণ ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপণা মন্ত্রণালয়ের তত্ত্বাবধানে জাতিসংঘের উন্নয়ন সহযোগী সংস্থা ইউএনডিপির অর্থায়নে ‘দুর্যোগ ব্যবস্থাপণা’ (ডিআরআর) শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় এ অর্থ সহায়তা দেয়া হয়েছে।

দুর্যোগে কক্সবাজারের স্থানীয় জনগোষ্ঠীর সুরক্ষা নিশ্চিত করতে এ্যাকশনএইডের নেয়া এই উদ্যোগের প্রশংসা করে তহবিলের অর্থ ব্যায়ে কমিটির সদস্যের স্বচ্ছতা নিশ্চিত করার নির্দেশনা দেন উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা মো: সাইফুল ইসলাম।

হোয়্যাইকং ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি অধ্যাক্ষ নূর আহমদ বলেন, আপদকালীন তহবিলে টাকা না থাকায় দুর্যোগের সময় জরুরি পরিস্থিতি সামাল দিতে হিমশিম খেতে হয়। অর্থ সহয়তা পাওয়ায় এখন থেকে তাৎক্ষণিকভাবে দুর্যোগ মোকাবেলা সহজ হবে। এছাড়া, হ্নীলা, টেকনাফ সদর ও বাহারছড়া ইউনিয়ন পরিষদের প্রতিনিধিরাও আর্থিক সহায়তার চেক গ্রহণ করেন।

প্রায় প্রতিবছরই নানা প্রাকৃতিক দুর্যোগের কবলে পড়ে ক্ষতিগ্রস্ত হন এই উপকূলীয় জেলার বাসিন্দারা। তারওপর ২০১৭ সালে বিপুল পরিমান রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠী আশ্রয় নেয়ায়, উখিয়া ও টেকনাফের বিস্তীর্ণ পাহাড়ী বনভূমি পুরোপুরি ধ্বংস হয়ে গেছে। এতে সমুদ্রতীরবর্তী এই জনপদের মানুষের দুর্যোগের ঝুঁকি আরো রেড়েছে। তাই দুর্যোগ মোকাবেলায় স্থাণীয় জনগণ এবং স্থানীয় সরকার বিভাগের সক্ষমতা বাড়াতে, ত্রাণ ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপণা মন্ত্রণালয়ের তত্ত্বাবধানে জাতিসংর্ঘের উন্নয়ন সহযোগী সংস্থা ইউএনডিপির অর্থায়নে ‘দুর্যোগ ব্যবস্থাপণা প্রকল্প’ হাতে নেয় এ্যাকশনএইড বাংলাদেশ।

২০১৮ সালের ডিসেম্বরে শুরু হওয়া প্রায় দেড়কোটি টাকার প্রকল্পটি এ মাসেই শেষ হবে। এই প্রকল্পের আওতায় কক্সবাজারের জেলা, উপজেলা ও ইউনিয়ন মিলিয়ে ১০টি দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটির সক্ষমতা বাড়াতে কাজ করেছে সংস্থাটি। ১০টি কমিটির ৪২৫জন সদস্যকে দুর্যোগ মোকাবেলার প্রশিক্ষণ দেয়া হয়েছে। তৈরি করা হয়েছে দুর্যোগ মোকাবেলার জরুরি পরিকল্পনা। এছাড়া, ৭ টি ইউনিয়ন কমিটির সদস্যদের ব্যক্তিগত সুরক্ষা ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপণায় রেসকিউ টোলবক্স, স্ট্রেচার, হ্যান্ডসাইক, রেডিও, বয়া, লাইফ-জ্যাকেট, ফায়ার ব্লাংকেলসহ ৪০ ধরনের উপকরণ দেয়া হয়।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •