২ডিসেম্বর  দৈনিক সকালের কক্সবাজার পত্রিকায় প্রকাশিত ‘বাজারঘাটায় রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের আশংকা: প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ ’ শীর্ষক সংবাদটি আমার দৃষ্টিগোচর হয়েছে। সংবাদটি সম্পূর্ণ মিথ্যা, বানোয়াট, ভিত্তিহীন ও উদ্দেশ্যমূলক।

প্রকৃত ঘটনা হলো- শহরের বাজাঘাটায় আমি ও আমার ভাইয়ের খরিদা মালিকানাধীন কক্সবাজার পৌরসভা মৌজার বিগত ১৮/১২/২০০৪ তারিখে রেজিষ্ট্রিযুক্ত দলিল নং- ৩৭০৯, বিএস খতিয়ান-৯৬১, বিএস ৬৬৩৪, ৬৬৩৫, ৬৬৩৬, ৬৬৪৪ দাগাদির ছয় শতক জমি রয়েছে। সেখানে আমার ভাড়া দেয়া কয়েকটি গুদামঘর, ইটের খামার, ভাতের মেচসহ অন্যান্য স্থাপনার রয়েছে। এর সাথে বিগত কয়েক বছর আগে সেখানে কক্সবাজার শহরের বৈদ্যঘোনা এলাকার মোঃ মোস্তাক ও আবু তাহের নামে দুইজনকে জেনারেটর বসানো জন্য একটি ঘর ভাড়া দিই। কিন্তু জেনারেটরের অতিরিক্ত শব্দদূষণের কারণে বিগত ৭/৮ মাস আগে তাদেরকে ঘর ছেড়ে দিলে বলি। তারা আজ, কাল ছেড়ে দেবে বলে কাল ক্ষেপণ করে আসছে। এমনকি বিগত ৪/৫ মাস ধরে ভাড়াও দিচ্ছে না। এর মধ্যে বিগত ২১/১০/২০১৯ ইং তারিখ স্থানীয় বিচারের সিদ্ধান্ত মতে তাদের জেনারেটর সরিয়ে নিবে বলে নন জুডিসিয়াল স্ট্যাম্পের মাধ্যমে অঙ্গীকার করে। তার পরিবর্তে তারা আমার কাছ থেকে ৫০ হাজার টাকা গ্রহণ করে। তারপরও বিচারের সিদ্ধান্ত এবং অঙ্গীকার মোতাবেক তারা জেনারেটর সরি নেয়নি। উল্টো বেআইনীভাবে আমাকে প্রাণনাশসহ নানা হুমকি দেয়। এমনকি গত ২৪/১১/২০১৯ ইং তারিখ গভীর রাতে ভাড়াটে সন্ত্রাসীদের সঙ্গে নিয়ে জেনারেটরগুলো আগের জায়গা থেকে সরিয়ে এবার সরাসরি চলাচলের পথে এনে বসায়। এই ঘটনার প্রতিবাদ করায় ভাড়াটে সন্ত্রাসীসহ মোঃ মোস্তাক ও আবু তাহের আমাকে হুমকি ও গালি-গালাজ করে। এই ঘটনায় থানায় একটি এজাাহার দায়ের করা হয়েছে। এরপরও তারা আমার বিরুদ্ধে নানা অপপ্রচার ও ষড়যন্ত্র শুরু করে। তারই অংশ হিসেবে সাংবাদিকদের মিথ্যা তথ্য দিয়ে আমার বিরুদ্ধে সম্পূর্ণ মিথ্যা ও মনগড়া সংবাদ পরিবেশন করেছে।

পরিশেষে এই মিথ্যা সংবাদে কাউকে বিভ্রান্ত না হওয়ায় অনুরোধ জানাচ্ছি এবং এই সংবাদের তীব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছি।

প্রতিবাদকারী
ছৈয়দ আকবর
দক্ষিণ রুমালিয়ারছড়া, কক্সবাজার পৌরসভা।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •