প্রেস বিজ্ঞপ্তি

উপমহাদেশের ঐতিহ্যবাহী রাজনৈতিক দল বাংলাদেশ নেজামে ইসলাম পার্টির আমীর আল্লামা সরওয়ার কামাল আজিজী বলেছেন, উপমহাদেশকে বৃটিশ বেনিয়াদের কবল থেকে মুক্ত করার লক্ষ্যে আযাদী আন্দোলনে নেতৃত্বদানকারী শীর্ষ ওলামায়েকেরামের স্মৃতিবিজড়িত সংগঠনই নেজামে ইসলাম পার্টি। প্রতিষ্ঠাকাল থেকে এ সংগঠন ইসলামী নেজামে ইসলাম প্রতিষ্ঠার সংগ্রাম, দেশের স্বাধীনতা-সার্বভৌমত্ব রক্ষাসহ জনকল্যাণমুখী বিভিন্ন ইস্যুতে কৃতিত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে চলেছে। এর ধারাবাহিকতায় জাতির যে কোন সঙ্কট উত্তরণে নেজামে ইসলাম নেতা-কর্মীদের অগ্রণী ভূমিকা পালন করতে হবে।
তিনি কক্সবাজার জেলা নেজামে ইসলাম পার্টির কাউন্সিল অধিবেশনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে একথা বলেন।
২৮ নভেম্বর ( বৃহস্পতিবার) সকাল ১০টায় সাগরতীরের হোটেল মিশুক সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত কাউন্সিল অধিবেশনে প্রধান বক্তা ছিলেন, পার্টির মহাসচিব মাওলানা মুসা বিন ইযহার। তিনি বলেন, ৫২ এর ভাষা আন্দোলন, ৫৪ সালের যুক্তফ্রন্টের নির্বাচন, নসৈরাচারী আইয়ুব খান বিরোধী আন্দোলন, পশ্চিম পাকিস্তানীদের জুলুম-শোষনের অবসানে নিখিল পাকিস্তানের রাজধানী ঢাকায় স্থানান্তরের ঐতিহাসিক আন্দোলন ঐতিহ্যব্যাহী নেজামে ইসলাম পার্টির সংগ্রামী অবদানের স্মারক।
অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে কেন্দ্রীয় সিনিয়র নায়েবে আমীর মাওলানা আব্দুল মাজেদ আতহারী বলেন, নেজামে ইসলাম পার্টি কীর্তিমান বুযুর্গানেদ্বীন ও বিদগ্ধ ওলামা- মশায়েখের ইখলাস ও তাকওয়ার ভিত্তিতে প্রতিষ্ঠিত একটি স্বতন্ত্রধারার ইসলামী রাজনৈতিক দল। নেজামে ইসলাম পার্টি কেবল একটি নাম নয়; এটি একটি বিপ্লব, একটি সমৃদ্ধ ইতিহাস। সংগ্রামী এ ঐতিহ্য ধারণ ইসলামী বিপ্লবের পথে নবদিগন্ত উন্মোচন করতে হবে।
জেলা আমীর মাওলানা হাফেজ ছালামতুল্লাহর সভাপতিত্বে, সাধারণ সম্পাদক মাওলানা ইয়াছিন হাবিবের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত কাউন্সিল অধিবেশনে বিশেষ অতিথি ছিলেন, খতীবে আযম রহ. এর সাহেবজাদা মাওলানা হাফেজ সোহাইব নোমানী, পার্টির কেন্দ্রীয় নায়েবে আমীর আব্দুর রহমান চৌধুরী, মাওলানা আব্দুল খালেক নিজামী।
বিশেষ বক্তা ছিলেন, পার্টির যুগ্ম- মহাসচিব মাওলানা মনজুরুল কাদের চৌধুরী, সহকারী মহাসচিব মাওলানা ইলিয়াছ খান, মাওলানা আজিজুল হক ইসলামাবাদী, সংগঠন সচিব মাওলানা আবু তাহের খান, ছাত্র ও যুব বিষয়ক সচিব অধ্যাপক নজরুল ইসলাম চৌধুরী, কেন্দ্রীয় সহ- আন্তর্জাতিক বিষয়ক সচিব মাওলানা মাহমুদুল হক, কক্সবাজার জেলার সিনিয়র নায়েবে আমীর মাওলানা আ.হ.ম নুরুল কবির হিলালী, সৌদি আরব রিয়াদ শাখার মাওলানা বুরহান উদ্দিন আল-রাজী, ময়মনসিংহ জেলা সেক্রেটারি মুফতি শরীফুর রহমান, ইসলামী ছাত্রসমাজের কেন্দ্রীয় সভাপতি আব্দুল্লাহ আল-মাসউদ খান, প্রবাসী মক্কা শাখার নায়েবে আমীর মাওলানা আব্দুর রহমান জিহাদী, চট্রগ্রাম মহানগর নেজামে ইসলাম পার্টির সভাপতি কারী ফজলুল করিম জিহাদী, সাধারণ সম্পাদক মাওলানা শামসুদ্দিন আফতাব, ইসলামী ছাত্রসমাজের কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি হাফেজ মুহাম্মদ আবুল মঞ্জুর, অর্থ সচিব এহতেশামুল হক সাখী, চট্রগ্রাম মহানগর সভাপতি মুহাম্মদ ওয়াহিদুল্লাহ।
কাউন্সিল অধিবেশনে দায়িত্বশীলদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, জেলা সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা ফরিদুল হক, সদর উপজেলা সহ-সভাপতি মাওলানা হোসাইন আহমদ, রামু উপজেলা আহবায়ক মাওলানা হাফেজ আব্দুর রহিম রাহী, শহর সাধারণ সম্পাদক মাওলানা খালেদ সাইফী, চকরিয়া পৌর সভাপতি মাওলানা ডা. মঈন উদ্দিন গাজী, টেকনাফ উপজেলা প্রতিনিধি মাওলানা নুরুল আমিন মাদানী, মহেশখালী উপজেলা প্রতিনিধি মাওলানা ওসমান গনি, শহর শাখার সহ-সম্পাদক হাফেজ মুহাম্মদ সালেম, যুগ্ম-সম্পাদক মাওলানা সাইফুল ইসলাম সাইফী।
এছাড়াও কাউন্সিল অধিবেশনে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, খেলাফত মজলিসের কেন্দ্রীয় নেতা মাওলানা নুরুল আলম আল মামুন, দৈনিক ইনকিলাবের কক্সবাজার আঞ্চলিক প্রধান ও বিশেষ সংবাদদাতা শামসুল হক শারেক, প্রবীণ সাংবাদিক কামাল হোসেন আযাদ, চট্রগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী অধ্যাপক মাওলানা মুফতি হুমায়ুন কবির খালভী, মুহাদ্দিস মাওলানা মুফতি আব্দুল হক, জেলা হেফাজতে ইসলামের অর্থ সম্পাদক মাওলানা হাফেজ মুবিনুল হক, মা’হাদ আন-নিবরাসের পরিচালক মাওলানা জিয়াউল হক, আন্তর্জাতিক কেরাত সম্মেলন সংস্থা কক্সবাজার জেলা সাধারণ সম্পাদক মাওলানা কারী সাইফুল্লাহ কাসেমী, জোয়ারিয়ানালা এমদাদুল উলুম মাদ্রাসার সিনিয়র শিক্ষক মাওলানা এজাজুল করিম শফী।
কাউন্সিলে আরও বক্তব্য রাখেন, সাবেক ছাত্রনেতা মাওলানা হুমায়ুন কবির, হাফেজ হেলাল উদ্দিন, মাওলানা ছৈয়দ আলম মুছররত, মুফতি ইউছুফ মক্কী, মাওলানা হাফিজ উদ্দিন, জেলা ইসলামী ছাত্রসমাজের সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ দিদারুল আলম, যুগ্ম-সম্পাদক মুহাম্মদ জায়নুল আবেদীন, ছাত্রকল্যাণ সম্পাদক মুহাম্মদ অলিউল্লাহ আরজু, রামু উপজেলা সহ-সভাপতি মুহাম্মদ আতাউল্লাহ, উখিয়া উপজেলা সভাপতি মুহাম্মদ মুহিউদ্দিন খাঁন, সদর উপজেলা আহবায়ক মুহাম্মদ আনিছুর রহমান।

কাউন্সিল অধিবেশনে মাওলানা হাফেজ ছালামতুল্লাহকে পূণরায় আমীর, মাওলানা ইয়াছিন হাবিবকে পূণরায় সাধারণ সম্পাদক করে এক বছরের জন্য জেলা কমিটি ঘোষণা করা হয়।
শেষে নেজামে ইসলাম পার্টির মরহুম নেতৃবৃন্দের রুহের মাগফিরাতসহ সাংগঠনিক অগ্রযাত্রার সফলতা কামনায় বিশেষ মুনাজাত করা হয়।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •