সংবাদদাতা:
চকরিয়ার কাকারা ইউনিয়নের পুর্ব কাকারা পাহাড়তলীর দুর্ধর্ষ চোর ও ছিনতাইকারী মোঃ ছোট্টুকে গণধোলাই দিয়ে (মোক্তারের ছোট ভাই) পুলিশে সোপর্দ করেছে স্থানীয় বাসিন্দারা।
২৬ নভেম্বর রাতে তাকে আটক করা হয়। সে ওই এলাকার মোঃ কালুর ছেলে। ওই দিন ছিনতাই করতে গিয়ে জনতার হাতে ধরা পড়ে ছোট্টু।
স্থানীয়দের সুত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার রাত অনুমান ১১ টার দিকে স্থানীয় বাসিন্দা আব্বাস সওদাগরের ছেলে মোঃ খালেদ সওদাগর তার ব্যবসায়ীক কাজকর্ম শেষে বাড়ি ফেরার পথে গতিরোধ করে ছুট্টুসহ দুই ছিনতাইকারী। চোখেমুখে মরিচের গুঁড়া দিয়ে হাতব্যাগে থাকা ব্যবসায়ীক ৩ লাখ টাকাসহ পালিয়ে যায়।
স্থানীয় জনতা ধাওয়া করে ছোট্টুর সহযাগী একজনকে ধরে ফেলে।
পরে নিজ বাড়িতে লুকিয়ে থাকা ছুট্টুকে আটক করা হয়। এ সময় স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানসহ গন্যমান্য ব্যক্তিরা উপস্থিত ছিলেন।
চিহ্নিত ছিনতাইকারী ছোট্টুসহ তার সহযোগীকে জিজ্ঞাসাবাদে ছোট্টু তার অপকর্মের কথা অকপটে স্বীকার করেছে বলে জানান খালেদ।
স্থানীয়রা জানিয়েছে, কাকারা ইউনিয়নের মাঝেরপাড়ি স্টেশনে ও তার আশ পাশের এলাকায় দীর্ঘ দিন রাত বিরাতে চুরি ও ছিনতাইয়ের ঘটনা সংঘটিত হলেও হাতেনাতে কাউকে ধরতে না পারায় সুনির্দিষ্ট কারো বিরুদ্ধে অভিযোগ করত না এলাকাবাসী।তবে সন্দেহের তালিকায় ছিল ছোট্টুসহ আরো অনেকে।তাদের বিরুদ্ধে কেউ কিছু বললে তার বড় ভাই মোক্তার ও তার অন্যান্য ভাই ও ভাবীদেরকে দিয়ে নাজেহাল করাত।তারা এখন থানা হেফাজতে। মামলা করার প্রক্রিয়া চলছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •