এম মনছুর আলম, চকরিয়া :

কক্সবাজারের চকরিয়ায় সামাজিক ও স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন পিস ফাইন্ডারের পক্ষ থেকে এবার হুইল চেয়ার এবং একটি সেলাই মেশিন পেল ৬ জন প্রতিবন্ধী। তন্মধ্যে শিশু এবং নারীও রয়েছে। উপকারভোগী ৫ জন প্রতিবন্ধী একটি করে হুইল চেয়ার এবং আরেক প্রতিবন্ধী নারী একটি সেলাই মেশিন পেয়ে আনন্দে উদ্বেলিত।

উল্লেখ্য, সমাজের অবহেলিত, পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠি এবং প্রতিবন্ধীদের জীবন-মান উন্নয়নে গত দশ বছর ধরে চকরিয়ায় কাজ করছে সামাজিক ও স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন পিস ফাইন্ডার।

গতকাল মঙ্গলবার বিকেলে সরকারী হাসপাতালের মাঠে প্রতিবন্ধীদের মাঝে হুইল চেয়ার ও সেলাই মেশিন তুলে দেন চকরিয়া থানার ওসি মো. হাবিবুর রহমান। এ সময় উপস্থিত ছিলেন দৈনিক কালের কণ্ঠ ও দৈনিক আজাদীর প্রতিবেদক ছোটন কান্তি নাথ, টিআইবি সদস্য জিয়াউদ্দিন জিয়া, সংগঠনের শুভাকাঙ্খি ঠিকাদার হাসানুল ইসলাম আদর, যুবনেতা আজিজুল হক, ডা. সুমন কান্তি দাশ, হুমায়ন কবির, যুবনেতা সেলিম রেজা, পিস ফাইন্ডার প্রতিষ্ঠাতা আদনান হায়দার রামীম, সদস্য মাহফুজুল আলম মাসুম, সৌরভ মাহাবী, রবিন, আমজাদ শাহরিয়ার জুয়েল, রবিউল হাসান, সুমন দাশ, মিশুকসহ অসংখ্য সদস্য।

গতকাল যেসব প্রতিবন্ধী হুইল চেয়ার পেল তারা হলো বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া পৌরসভার হিন্দুপাড়ার লাবণ্য বৈদ্য, পালাকাটা কাসেম মাষ্টার পাড়ার আবদু শুক্কুরের স্ত্রী হাজেরা খাতুন, হালকাকারা গ্রামের মোক্তার আহমদের পুত্র বশির আহমদ, কাকারা ইউনিয়নের মাইজ কাকারার রফিকুল ইসলামের পুত্র মো. আলিফ, কৈয়ারবিলের ৮ নম্বর ওয়ার্ডের জয়নাল আবেদীনের কন্যা তৈয়বা জন্নাত। এছাড়া সেলাই মেশিন প্রদান করা হয় পালাকাটা চরপাড়া গ্রামের আবদুর রহিমের স্ত্রী হামিদা বেগমকে।

প্রধান অতিথি চকরিয়া থানার ওসি মো. হাবিবুর রহমান বলেন, সমাজের পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠি বিশেষ করে প্রতিবন্ধীদের কল্যাণে যে মানবিক কাজ নিয়ে পিস ফাইন্ডার এগিয়ে যাচ্ছে তা খুবই প্রশংসনীয়।

পিস ফাইন্ডারের প্রতিষ্ঠাতা আদনান হায়দার রামীম বলেন, রক্তদান, শীতবস্ত্র বিতরণ ছাড়াও গত ১০ বছর ধরে আর্ত মানবতার সেবার ব্রত নিয়ে সংগঠনটি এগিয়ে যাচ্ছে। সংগঠনের পক্ষ থেকে ইতোমধ্যে ৩৬ জন প্রতিবন্ধী শিশু, নারী ও পুরুষকে হুইল চেয়ার এবং চারজন প্রতিবন্ধী নারীকে একটি করে সেলাই মেশিন প্রদান করা হয়েছে। আগামীতেও এই প্রয়াস অব্যাহত থাকবে।’

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •