ডেস্ক নিউজ:

প্রতিনিয়ত বিদ্বেষমূলক হামলা বা গালিগালাজের শিকার হচ্ছে কেউ না কেউ। প্রকাশ্যে সকলের সামনে ঘটনা ঘটলেও প্রতিবাদ করতে কাউকে এগিয়ে আসতে দেখা যায় না। তবে এবার এমন একটি ঘটনার প্রতিবাদ করে নেট দুনিয়া নেটিজেনদের প্রশংসার পাত্রী হয়ে উঠেছেন এক মুসলিম নারী।

সাহসিকতার সঙ্গে ইহুদি সহযাত্রীর সঙ্গে হতে থাকা অন্যায়ের বিরোধিতা করে এখন সকলের চোখে ‘হিরো’ আসমা শোয়েখ। আসমার এই সাহসী প্রতিবাদের জন্য ধন্যবাদ জানিয়েছেন সেই ইহুদি সহযাত্রীও।

ঘটনাটি ঘটে গত ২২ নভেম্বর, লন্ডনের পাতাল রেলে। সেদিন আক্রান্ত ওই ব্যক্তি পাতাল রেলের চড়ে পরিবারসহ এক আত্মীয়ের বাড়ি যাচ্ছিলেন। হেনডন সেন্ট্রাল থেকে পাতাল রেলে চড়েন তারা। যাচ্ছিলেন কনভেন্ট গার্ডেনের দিকে।

তারা ট্রেনে ওঠার পর এক ব্যক্তি ওই ট্রেনটিতে ওঠে। পোশাক দেখে তাদের জিজ্ঞাসা করেন যে, তারা ইহুদি কী না। পরিবারটি তাদের ইহুদি বলে পরিচয় দেয়। এরপর বিদ্বেষমূলক গালিগালাজ করতে থাকে ওই অজ্ঞাত পরিচয় সহযাত্রী। বাইবেল হাতে ইহুদিবিদ্বেষী বার্তাও দিতে থাকেন। তার এই বিদ্বেষমূলক কথাবার্তায় পাত্তা না দিলে আরও বেশি করে গলা ফাটিয়ে ওই ইহুদি পরিবারের বিরুদ্ধে গালিগালাজ করতে থাকে। তাদের চাকর করে রাখার কথাও বলে। মারমুখী হয়ে ওঠে ওই ব্যক্তি।

ইতোমধ্যে, ওই ব্যক্তিকে ইহুদি পরিবারের ওপর চড়াও হতে দেখে সামনে এগিয়ে আসেন হিজাব পরা আসমা। ওই ব্যক্তিকে এভাবে গালিগালাজ করতে বাধা দেন তিনি। তাকে প্রতিবাদ করতে দেখে আরও একজন সহযাত্রীও প্রতিবাদ করেন। আসমার এই সাহসী মানসিকতাকে ক্যামরা বন্দি করতে থাকেন অন্য যাত্রীরা।

তাদের মতে, আসমার মতো মানুষ পৃথিবীতে শান্তির বার্তা নিয়ে আসতে পারে। এই ধরনের শিক্ষা ও মানসিকতায় পৃথিবী উজ্জ্বল ভবিষ্যত পেতে পারে।

পশ্চিমা দেশগুলোতে প্রচলিত আছে যে মুসলিম-ইহুদিদের মধ্যে চিরকালীন বিদ্বেষ রয়েছে। কিন্তু আসমা এমন প্রতিবাদ বিশ্বের কাছে এক অন্য বার্তা পৌছে দিল। মানবিকতা ও সম্প্রীতির মুখ দেখল বিশ্ব।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •