আন্তর্জাতিক ডেস্ক:
ভারতের বিতর্কিত জাতীয় নাগরিক পঞ্জিকা (এনআরসি) নিয়ে ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেবের করা মন্তব্যের একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। ভিডিওতে তাকে বলতে দেখা যায়, ত্রিপুরায় যদি এনআরসি বাস্তবায়ন করা হয়, তাহলে মুখ্যমন্ত্রী পদে তার থাকা হবে না।

বিপ্লব কুমার দেব বলেন, তার বাবা এবং আত্মীয়-স্বজনরা বাংলাদেশ থেকে এসেছেন। ত্রিপুরায় যদি এনআরসি বাস্তবায়ন করা হয়, তাহলে অন্যান্য যারা ক্ষতিগ্রস্থ হবেন তিনিও তাদের মধ্যে থাকবেন। এমনকি তার মুখ্যমন্ত্রীর চেয়ারও থাকবে না।

‘আমি যদি এটি আমার রাজ্যে বাস্তবায়ন করি…আমার আত্মীয়-স্বজন, আমার বাবা বাংলাদেশ থেকে এসেছেন। আমার বাবা এখানে এসে তার নাগরিকত্ব কার্ড পেয়েছিলেন…তারপর আমার জন্ম ত্রিপুরায়। সুতরাং এনআরসির জন্য যদি কারও ক্ষতি হয়, তাহলে প্রথমে আমিও মুখ্যমন্ত্রীত্ব হারাবো। আমি কি বোকা যে মুখ্যমন্ত্রীত্ব হারানোর জন্য এনআরসি বাস্তবায়ন করতে দেবো?’

ফেসবুক, টুইটারসহ বিভিন্ন ধরনের সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রীর এমন মন্তব্যের ভিডিওটি মুহূর্তের মধ্যেই ভাইরাল হয়ে যায়। এটি নেটিজেনরাও নানা ধরনের মন্তব্য করছেন। অনেকেই তার মন্তব্যের সমালোচনা করলেও তার পাশে দাড়িয়ে কেউ কেউ বলছেন, তিনি নিরাপদে থাকবেন। কারণ দেশটির সরকার নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলটি নিয়ে পর্যালোচনা করছে।

পশ্চিমবঙ্গের উত্তর দিনাজপুর ও কালিয়াগঞ্জের উপনির্বাচনের প্রচারণায় অংশ নিতে দুই দিন আগে সেখানে গিয়েছিলেন ত্রিপুরার এই মুখ্যমন্ত্রী। নির্বাচনী প্রচারণা শেষে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন তিনি। ভাইরাল ভিডিও ক্লিপটি সেই সংবাদ সম্মেলনের।

উত্তর দিনাজপুর ও কালিয়াগঞ্জের উপনির্বাচনে বিজেপির প্রার্থীর পক্ষে নির্বাচনী প্রচারণা চালাতে গিয়ে প্রথমে বাধার মুখে পড়েন ত্রিপুরা এই মুখ্যমন্ত্রী। সেখানে ব্যস্ত সড়কে তাকে মোটরসাইকেলের বহর নিয়ে যেতে দেয়া হয়নি; স্থানীয় প্রশাসন তাকে ভিন্ন সড়ক ব্যবহারের অনুমতি দেয়।

পরে সংবাদ সম্মেলনে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়ের সমালোচনা করে বিপ্লব কুমার দেব বলেন, মোটরসাইকেল বহরের যাত্রায় নিয়ন্ত্রণ আরোপ করে মুখ্যমন্ত্রী মমতা তাকে অপমান করেছেন।

তবে এই ভিডিওটির সত্যতা যাচাইয়ের জন্য মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেবের কার্যালয়ের সঙ্গে যোগাযোগ করেছে দেশটির ইংরেজি দৈনিক ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস। বিপ্লব কুমার দেবের গণমাধ্যমবিষয়ক উপদেষ্টা সঞ্জয় মিশ্র বলেছেন, নোংরা রাজনীতির অংশ হিসেবে ভিডিওটি কিছু অংশ প্রচার করা হচ্ছে। এর উদ্দেশ্য হচ্ছে মানুষকে বিভ্রান্ত করা।

সংবাদ সম্মেলনের পুরো ভিডিওতে বিপ্লব কুমার দেবকে বলতে শোনা যায়, অবৈধ অভিবাসী, বিদেশি অনুপ্রবেশকারী, চোর এবং ডাকাতদের থেকে ভারতীয়দের রক্ষা করাই এনআরসি এবং নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলের লক্ষ্য।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •