গত ২৫ নভেম্বর দৈনিক আপন কণ্ঠ ও আলোকিত উখিয়া পত্রিকায় ‘ঈদগড়ে অটোবাইক চালক সমিতির নেতাকে কুপিয়ে ৩ লাখ টাকা ছিনতাই’ শীর্ষক সংবাদটি আমাদের দৃষ্টিগোচর হয়েছে। সংবাদটি সম্পূর্ণ মিথ্যা ও ভিত্তিহীন এবং সংবাদে উদ্দেশ্যেমূলক ভাবে আমাদেরকে জড়ানো হয়েছে।
প্রকৃতপক্ষে ঈদগড়ে দীর্ঘদিন ধরে পরিবহন কেন্দ্রিক কিছু চাঁদাবাজ চাঁদাবাজি করার চেষ্টা করে আসছে। তবে প্রকৃত শ্রমিক তথা চালকেরা চাঁদাবাজদের অন্যায় আবদারে সাড়া দেয়নি। কিন্তু সংঘবদ্ধ চাঁদাবাজরা অটোবাইক চালক সমিতির নাম ব্যবহার নতুন করে চাঁদাবাজি করার পায়তারা চালিয়ে যাচ্ছে বেশ কিছুদিন ধরে। এক পর্যায়ে অটোবাইক সমিতির নাম ব্যবহারকারী চাঁদাবাজদের সাথে প্রকৃত চালকদের মারমুখি অবস্থা হয়ে যায়। এরই অংশ হিসেবে ঈদগড় বাজারে অটোবাইক সমিতির নাম দিয়ে চাঁদাবাজি করতে বাঁধা দেয় প্রকৃত চালক তথা শ্রমিকেরা। পরে ক্ষিপ্ত হয়ে ২৪ নভেম্বর ধারালো অস্ত্র নিয়ে ঈদগড় বাজারে চাঁদা তুলতে নামে অটোবাইক সমিতির চাঁদাবাজরা। অস্ত্র জমা রাখে জনৈক গিয়াস উদ্দিনের দোকানে। ওই সময় চালকরা তাদের বাঁধা দিলে উভয়পক্ষের মধ্যে মারামারির ঘটনা হয়। এঘটনার সাথে আমরা বিন্দু পরিমাণ জড়িত নয়। কিন্তু আমাদেরকে জড়িয়ে মিথ্যা, ভিত্তিহীন ও উদ্দেশ্যেমূলকভাবে সংবাদ ছাপানো হয়েছে। যেটা আসলে খুবই বিব্রতকর এবং দুঃখজনক। এধরণের সাজানো ও মিথ্যা সংবাদে কাউকে বিভ্রান্ত না হওয়ার জন্য বিনীত অনুরোধ জানাচ্ছি। একই সাথে চাঁদাবাজদের উপদ্রব বন্ধে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করছি।
প্রতিবাদকারীগণ
ঈদগড় টমটম মালিক সমবায় সমিতির (রেজিঃ নং ২২২৬) সভাপতি বনী আমিন, সহসভাপতি নাগর উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক শাহাজাহন, ঈদগড় ইউনিয়ন শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক নেজাম উদ্দিন, সাংগঠনিক সম্পাদক মশিউর রহমান ও ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি জসিম উদ্দিন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •