মুহাম্মদ আবু সিদ্দিক ওসমানী :

মহেশখালী উপজেলার কালারমারছরা ইউনিয়ন পরিষদ মাঠে শনিবার ২৩ নভেম্বর আত্মসমর্পণকৃত ৯৬ জন জলদস্যু ও অস্ত্রের কারিগরের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে তাদের সকলকে কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে। বিষয়টি মহেশখালী থানার ওসি প্রভাষ চন্দ্র ধর সিবিএন-কে নিশ্চিত করেছেন।

আত্মসমর্পণকারীরা রাষ্ট্রের কাছে মোট ১৫৫ টি অস্ত্র ও ২৭৩ টি পিচ গোলাবারুদ জমা দিয়েছে। আত্মসমর্পণের আনুষ্ঠানিকতা শেষে এসব অবৈধ অস্ত্র ও গোলাবারুদ রাখার অভিযোগ এনে ৯৬ জন জলদস্যু ও অস্ত্রের কারিগরকে আসামী করে মহেশখালী থানার ওসি (তদন্ত) বাবুল আযাদ বাদী হয়ে ১৮৭৮ সালের অস্ত্র নিয়ন্ত্রণ আইনে মহেশখালী থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। যার থানা মামলা নম্বর : ১৯/২০১৯ ইংরেজি। মামলা দায়েরের পর কক্সবাজার আদালতের কোর্ট ইনস্পেকটর মাহবুবুর রহমানের মাধ্যমে ৯৬ জন আসামীকে আদালতে প্রেরণ করা হয়। আদালতে মামলাটির জিআর নম্বর পড়ে ৩১৭/২০১৯ ইংরেজি। সাপ্তাহিক ছুটিকালীন আদালতের বিচারক সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট তামান্না ফারাহ্ এই মামলার ৯৬ জন আসামীকে চার্জ ওয়ারেন্ট (সি ডাব্লিও) মূলে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।আদালতের নির্দেশ অনুযায়ী শনিবার বিকেলে ৯৬ জন আত্মসমর্পণকারী আসামীকে কক্সবাজার জেলা কারাগারে প্রেরণ করা হয় বলে সিবিএন-কে কোর্ট ইনস্পেকটর মাহবুবুর রহমান জানিয়েছেন।

প্রসঙ্গত, আত্মসমর্পণের মধ্যস্থতাকারী আনন্দ টিভি’র বিশেষ প্রতিনিধি এম.এম আকরাম হোসাইনের কাছ থেকে কক্সবাজার জেলা পুলিশ আত্মসমর্পনকারীদের বুঝে নেওয়ার সময় এসব অস্ত্র, গোলাবারুদ ও অস্ত্র তৈরীর সরঞ্জাম কক্সবাজার জেলা পুলিশের কাছে বুঝিয়ে দেন। এসব অস্ত্র, গোলাবারুদ ও অস্ত্র তৈরীর সরঞ্জামের জব্দ তালিকা তৈরী করে মামলার আলামত হিসাবে এই মামলায় দেখানো হয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •