আলমগীর মানিক, রাঙামাটি:

দেশী-বিদেশী পাহাড়ি সন্ত্রাসীদের একচ্ছত্র আধিপত্যে থাকা রাঙামাটির রাজস্থলীতে আবারো হামলার ঘটনা ঘটিয়েছে মুখোশধারি সশস্ত্র পাহাড়ি সন্ত্রাসীরা। অস্ত্রধারি এসব সন্ত্রাসীদের হামলায় এবার গুরুত্বর আহত হয়েছে তিন বাঙ্গালী শ্রমিক। তারা তিনজনই রাজস্থলী উপজেলার গাইন্দ্যা ইউনিয়নের লংগদু পাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভবন নির্মান কাজে নিয়োজিত ছিলো।

আহতরা হলেন: ঠিকাদারের সহযোগি মো. হারুন (৪৩), মো. আক্কাস আলী (১৭) ও মো. রমিজ উদ্দিন (২৫)। আহতরা জানান, মূলত: চাহিত চাঁদা না পেয়ে হামলা চালিয়েছে আঞ্চলিকদলের পাহাড়ি সন্ত্রাসীরা। বুধবার দুপুর আড়াইটার দিকে রাঙামাটির রাজস্থলী উপজেলার গাইন্দ্যা ইউনিয়নের লংগদু পাড়ায় এ ঘটনা ঘটে। মাত্র ২৪ ঘন্টা আগে রাজস্থলীর বালুমুড়া এলাকায় অজ্ঞাতনামা তিনজনকে হাত-পা বেধে মাথায় গুলি করে হত্যা করেছে সশস্ত্র পাহাড়ি সন্ত্রাসীরা।

স্থানীয়দের মাধ্যমে জানাগেছে, গাইন্দ্যা ইউনিয়নের লংগদু পাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়টির ভবন নির্মানের কাজ শুরু করা হলে স্থানীয় একটি আঞ্চলিকদলের পক্ষ থেকে চাঁদা দাবি করা হয়। চাহিত চাঁদা না দিয়ে কাজ শুরু করলে বুধবার দুপুরের পর এই হামলার ঘটনা ঘটায় একদল মুখোশদারি সন্ত্রাসী। এসময় সহকারী ঠিকাদার হারুন ও শ্রমিক আক্কাস আলী ও রমিজ উদ্দিনকে বেদড়ক পিটিয়ে গুরুত্বর আহত করে সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা। এসময় তাদের কাছ থেকে চারটি মোবাইল ফোনসেট ও ৮ হাজার টাকা নিয়ে যায় সন্ত্রাসীরা।

এদিকে স্থানীয়দের মাধ্যমে খবরপেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে আহতদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায় রাজস্থলী থানা পুলিশ। স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে কর্তব্যরত ডাঃ মো: নাজিম উদ্দিন জানান, আহতদের আপাতত প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে রাঙামাটি জেনারেল হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।

রাজস্থলী থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ মফজল আহাম্মদ খান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানিয়েছেন, চাঁদার জন্যেই উক্ত হামলার ঘটনা ঘটানো হয়েছে বলে আমরা জানতে পেরেছি। এই ব্যাপারে প্রয়োজনীয় আইনানুগ পদক্ষেপ নেওয়ার প্রক্রিয়া চলছে। এছাড়া সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এলাকার গুরুত্বপূর্ন পয়েন্টগুলোতে পুলিশ মোতায়ন করা হয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •