জহির খন্দকার, ঈদগড়ঃ

রামু উপজেলার ঈদগড়ে ডাকাত সন্দেহে ২ যুবক কে আটক করে পুলিশে দিয়েছে এলাকাবাসী।যুবকের চাকুর আঘাতে গুরুতর আহত হয়েছে ৩ জন।আহতেরা হলেন খোরশেদ আলম আবুল হোসেন ও জাকের হোসেন।আহত আবুল হোসনের অবস্তা গুরুতর হওয়ায় উন্নত চিকিৎসার জন্য চট্রগ্রামে মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে।
জানা যায়, আাজ সকাল সাড়ে ৮ টার দিকে ঈদগড় ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়াডের বউঘাট সেংছড়ি গ্রামের জাফর আলমের পুত্র জাকের হোসেনের(২৯) বাড়ীতে ঈদগাও জালালাবাদ ইউনিয়নের মিয়াজীপাড়া গ্রামের আব্দুর শুক্কুরের পুত্র মোরশেদ আলমকে (৩০)দেখতে পেয়ে বউঘাট উপরের খীল গ্রামের জবর মুল্লুকের ছেলে আবুল হোসন কি জন্য এসেছে জানতে চাইলে উক্ত মোরশেদ আলম পাশ্বের জঙ্গলে দৌড় দেয়।পেছনে পেছনে যেতে চাইলে আবুল হোসনকে চাকু মেরে আহত করে।আবুল হোসন চিৎকার শুনে একই এলাকার মন্টু মিয়ার ছেলে খোরশেদ আলম জবর মুল্লুকের ছেলে আবুল হোসেন ও জাকের হোসেন এগিয়ে আসলে তাদেরকে ও ধারালো চাকু দিয়ে আঘাত করে পালিয়ে যায়।পরে এলাকাবাসী পাশ্বের জঙ্গলে তল্লাসী চালিয়ে যুবক মোরশেদ আলম ও ডাকাত আশ্রয় দেওয়ার অভিযোগে জাকের হোসেনকে আটক করে ঈদগড় পুলিশ ক্যাম্পে হস্তান্তর করেছে।    রামু থানার এ এস আই মোরশেদ আলম ডাকাত সন্দেহে ২ জনকে পুলিশে দেওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেছেন তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •