সৎ, দক্ষ, যোগ্য ও আলোকিত মানব সম্পদ উৎপাদনই বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্যতম লক্ষ্য : চবি উপাচার্য

মুহাম্মদ আবু সিদ্দিক ওসমানী :

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. শিরীণ আখতার বলেছেন, সত্য-সুন্দর-কল্যাণ আর জ্ঞানের আলোয় আলোকিত হওয়ার তীর্থস্থান হল বিশ্ববিদ্যালয়। সৎ, যোগ্য ও বহুমাত্রিক দক্ষতা সম্পন্ন আলোকিত মানব সম্পদ উৎপাদনই চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্যতম লক্ষ্য। সোমবার ১৮ নভেম্বর চবি উপাচার্য দপ্তরের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ৫৩ তম দিবস উদযাপন উপলক্ষে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন কর্তৃক আয়োজিত “বিশ্ববিদ্যালয়ের সার্বিক মানোন্নয়নের লক্ষ্যে করণীয়” শীর্ষক আলোচনা সভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

উপাচার্য তাঁর বক্তব্যে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ৫৩ তম চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় দিবস উপলক্ষে বিশ্ববিদ্যালয় পরিবারের সকলকে স্বাগত, শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানান। তিনি তাঁর বক্তব্যের শুরুতে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, জাতীয় চারনেতা, মহান মুক্তিযুদ্ধে শাহাদাৎ বরণকারী ৩০ লক্ষ শহীদ, মহান মুক্তিযুদ্ধে আত্মোৎসর্গকারী চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় পরিবারের সদস্যদের এবং ’৭৫ এর ১৫ আগস্ট নির্মমভাবে শাহাদাৎ বরণকারী বঙ্গবন্ধু পরিবারের সদস্যবর্গের স্মৃতির প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। মহান মুক্তিযুদ্ধে নির্যাতিত দু’লক্ষ জায়া-জননী-কন্যার প্রতি বিশেষ সম্মান প্রদর্শন করেন এবং শহীদ জননী জাহানারা ইমামকে শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করেন।

উপাচার্য বলেন, মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে ধারণ এবং এ অমিয় চেতনা সমুন্নত রেখে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার শিক্ষা দর্শন, শিক্ষার সাথে ক্রীড়া ও সংস্কৃতিকে সমন্বয় করে ‘আধুনিক প্রযুক্তি নির্ভর গুণগত শিক্ষা’-এর সফল বাস্তবায়নের ফলে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় এখন দেশের অন্যতম উচ্চশিক্ষা-গবেষণা প্রতিষ্ঠান। চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়কে উন্নত বিশ্বের কাতারে সামিল করতে এই প্রতিষ্ঠানের জ্ঞান-গবেষণার ক্ষেত্র সম্প্রসারণ এবং উচ্চশিক্ষা ও গবেষণার অধিকতর মানোন্নয়নকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। উপাচার্য আরও বলেন, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক, প্রশাসনিক ও ভৌত অবকাঠামো উন্নয়নসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের সার্বিক উন্নয়নের সকল ক্ষেত্রে সততা, স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিতকরণে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন দৃঢ় অঙ্গীকারাবদ্ধ।
উপাচার্য তাঁর বক্তব্যে শিক্ষার্থীরা তাদের মেধাকে সর্বোচ্চ কাজে লাগিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় হতে অবিরাম জ্ঞান আহরণের মাধ্যমে সত্য-সুন্দর-কল্যাণকে ধারণ করে জ্ঞানের আলোয় আলোকিত হয়ে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা বিনির্মাণে দৃশ্যমান ভূমিকা রাখার আহ্বান জানান।

জাতীয় সংগীত এর মাধ্যমে সূচিত অনুষ্ঠানে আলোচনা সভার শুরুতে পবিত্র ধর্মগ্রন্থসমূহ থেকে পাঠ করা হয়। এছাড়া জাতির জনক বঙ্গবন্ধু, বঙ্গবন্ধু পরিবারের শহীদ সদস্যবর্গ, জাতীয় চারনেতাসহ মহান মুক্তিযুদ্ধে শহীদদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করে বিশেষ দোয়া ও মোনাজাত অনুষ্ঠিত হয় এবং দাঁড়িয়ে একমিনিট নিরবতা পালন করা হয়। এছাড়া সাম্প্রতিক ব্রাহ্মণবাড়ীয়ার রেল দূর্ঘটনায় ও চট্টগ্রামের পাথরঘাটায় দূর্ঘটনায় নিহতদের আত্মার মাগফেরাত ও শান্তি কামনা করে বিশেষ দোয়া ও মোনাজাত করা হয়। উপাচার্য চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ৫৩তম ‘চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় দিবস’ উপলক্ষে বিশ্ববিদ্যালয় পরিবারের সকলকে সাথে নিয়ে কেক কাটেন।
এরআগে সকালে বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার চত্বর থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. শিরীণ আখতারের নেতৃত্বে বর্ণাঢ্য র‌্যালি অনুষ্ঠিত হয়। র‌্যালি শেষে উপাচার্য বিশ্ববিদ্যালয় পরিবারের সকলকে সাথে নিয়ে চবি বঙ্গবন্ধু চত্বরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অর্পণ করে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। এছাড়া বিশ্ববিদ্যালয় দিবস উপলক্ষে ১৭ নভেম্বর ২০১৯ সন্ধ্যা থেকে বিশ্ববিদ্যালয় স্বাধীনতা স্মৃতি স্তম্ভ, শহীদ মিনার, জয়বাংলা ভাস্কর্য, জিরো পয়েন্ট ‘স্মরণ’ চত্বর ও বিশ্ববিদ্যালয়ের গুরুত্বপূর্ণ ভবনসমূহ দৃষ্টিনন্দন আলোকসজ্জায় সজ্জিত করা হয়।

আলোচনা সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন চবি সিনেট সদস্য প্রফেসর ড. সুলতান আহমদ, সিন্ডিকেট সদস্য প্রফেসর ড. মহীবুল আজিজ, শিক্ষক সমিতির সভাপতি প্রফেসর মো. জাকির হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক প্রফেসর ড. অঞ্জন কুমার চৌধুরী, কলা ও মানববিদ্যা অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. মো. সেকান্দর চৌধুরী, শহীদ আবদুর রব হলের প্রভোস্ট প্রফেসর ড. এ কে এম মাঈনুল হক মিয়াজী, অর্থনীতি বিভাগের সভাপতি প্রফেসর ড. মো. আলী আশরাফ, প্রক্টর প্রফেসর এস এম মনিরুল হাসান, বঙ্গবন্ধু পরিষদ-চবি’র সভাপতি প্রফেসর ড. মো. রাশেদ-উন-নবী, চবি অফিসার সমিতির সভাপতি এ কে এম মাহফুজুল হক, কর্মচারী সমিতির সভাপতি মো. আনোয়ার হোসেন এবং কর্মচারী ইউনিয়নের সভাপতি মো. আবদুল হাই। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) কে এম নুর আহামদ।

অনুষ্ঠানে বিশ্ববিদ্যালয়ের অনুষদ সমূহের ডিনবৃন্দ, শিক্ষক সমিতির নেতৃবৃন্দ, হলের প্রভোস্টবৃন্দ, বিভাগীয় সভাপতি এবং ইনস্টিটিউট ও গবেষণা কেন্দ্রের পরিচালকবৃন্দ, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকবৃন্দ, সহকারী প্রক্টরবৃন্দ, ছাত্র-ছাত্রী পরামর্শ ও নির্দেশনা’র পরিচালক, অফিস প্রধানবৃন্দ, অফিসার সমিতি-কর্মচারী সমিতি-কর্মচারী ইউনিয়নের নেতৃবৃন্দ, শিক্ষার্থীবৃন্দসহ বিশ্ববিদ্যালয় পরিবারের সদস্যবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

সর্বশেষ সংবাদ

চট্টগ্রামের ইপিজেডে গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে আহত ৬

লম্বরী মলকাবানু হাইস্কুলের ৯ম শ্রেনীর ছাত্রী অপহৃত

ইয়াবার প্যাকেটে ‘ডাল’

মিয়ানমার সফরে রোহিঙ্গা সমস্যা নিয়েও আলোচনা

ব্যারিস্টার হলেন খালেদা জিয়ার নাতনী জাইমা

আমি কি একটু বিষণ্ণও হতে পারবোনা?

মানুষ কষ্ট পাবে বলে ওয়ান ইলাভেনে কক্সবাজারের দায়িত্ব নিই নাই : ফোরকান আহমেদ

আত্মীয় ছাড়া অন্যরাও কিডনি দিতে পারবেন

বঙ্গবন্ধুকে স্মরণ করলেন জামায়াতের নতুন আমির, কিন্তু

দেশের সব স্বাস্থ্যকন্দ্রে দেওয়া হবে বিনামূল্যে স্যানিটারি ন্যাপকিন

রোহিঙ্গাদের সহায়তায় জাতিসংঘের স্বচ্ছতা নিয়ে প্রশ্ন টিআইবির

চকরিয়ায় দুইদিন ব্যাপী জাতীয় বিজ্ঞান মেলা ও বিজ্ঞান অলিম্পিয়াড উদ্বোধন

মাটি কেটে কদ্দাছড়ার শাখাখাল ভরাট কাজ বন্ধের নির্দেশ

রোহিঙ্গাদের হামলায় রক্ত ঝরলো স্থানীয় যুবকের

শহরে পণ্যের গুদামে আগুন, ১০ লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি

ডিসি কলেজের শিক্ষার্থীদের জীবনের গল্প শোনালেন সিএসপি হাসনাত আবদুল হাই

হিমছড়িতে গভীর রাতে কৃষকের ৫ লাখ টাকার গাছ ধ্বংস

স্থানীয় শিশুদের ১০ হাজার হাইজিন কিট দিয়েছে সেভ দ্য চিলড্রেন

ছাত্রদলের জালিয়াপালং উত্তর-দক্ষিণ, হলদিয়াপালং উত্তর ও পালংখালী কমিটি বিলুপ্ত 

বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে লেকচার দিতে ড. রাহমান নাসিরের অস্ট্রেলিয়া গমন