মুহাম্মদ আবু সিদ্দিক ওসমানী :

কক্সবাজার-৪ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য আবদুর রহমান বদি বলেছেন, ‘জ্ঞাত আয়বহির্ভূত কোনো সম্পদ আমি অর্জন করিনি। আমি কর দিয়ে সেরা করদাতা নির্বাচিত হয়েছি। কিন্তু দুর্নীতির ‘মিথ্যা’ মামলায় আমার ৩ বছর সাজাও হয়েছিল। এরপর থেকে আমার কর দিতে বেশী ভয় লাগে।

টেকনাফে শনিবার ১৬ নভেম্বর ৪ দিনব্যাপী আয়কর মেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সাবেক এমপি আবদুর রহমান বদি তাঁর এই ভয়ের কথা প্রকাশ করেন।

জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের অধীনে টেকনাফ আয়কর অফিসের আয়োজনে ৪ দিনব্যাপী এই আয়কর মেলা প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত থেকে উদ্বোধন করেন কক্সবাজার-৪ (উখিয়া-টেকনাফ) আসনের সংসদ সদস্য শাহীন আক্তার চৌধুরী। আবদুর রহমান বদি বিশেষ অতিথির বক্তব্যে বলেন–প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি আস্থা ও বিশ্বাসের পরিপূর্ণ মর্যাদা ও সম্মান রেখে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতায় বিগত দিনে কাজ করেছি এবং সারাজীবন কাজ করে যাবো ইনশাল্লাহ। আমি সততার সাথে ব্যবসা করে জীবিকা নির্বাহ করি। টেকনাফ উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত উক্ত আয়কর মেলায় আবদুর রহমান বদি আরো বলেন, অনেকে মনে করেন, আয়কর দিতে গেলে ঝমেলা হয়। সোনার বাংলা গড়ার লক্ষ্যে টেকনাফের শত শত মানুষ আয়কর দিতে বদ্ধপরিকর।

প্রধান অতিথি উখিয়া-টেকনাফের বর্তমান সংসদ সদস্য শাহীন আক্তার চৌধুরী তাঁর বক্তব্যে দেশের সার্বিক উন্নয়ন ও উন্নতির জন্য আয়কর মেলা গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখবে বলে উল্লেখ করে দেশের স্বার্থে প্রত্যেকের নিয়মিত আয়কর পরিশোধ করা জরুরি। কাজেই দেশের সকল নাগরিককে নিয়মিত আয়কর পরিশোধে সচেতন হওয়ার আহ্বান জানান শাহীন আক্তার চৌধুরী এমপি।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অন্যান্য অতিথিদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম-৪ সার্কেলের কর কমিশনার মুতাসিম বিল্লাহ ফারুকী, টেকনাফ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নুরুল আলম, টেকনাফের নবাগত উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোঃ সাইফুল ইসলাম, টেকনাফ সহকারী কমিশনার (ভূমি) আবুল মনসুর, টেকনাফের সহকারী কর কমিশনার রাজীব রানা মল্লিক,
কক্সবাজার জেলা পরিষদ সদস্য ও টেকনাফের সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান শফিক মিয়া সহ বিভিন্ন সরকারি কর্মকর্তা কর্মচারিবৃন্দ।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •