ইমাম খাইর, সিবিএনঃ
কক্সবাজার শহরের হোটেল-মোটেল জোনের স্টার মানের আবাসিক হোটেল প্রাসাদ প্যারাডাইসের গুদাম ঘরসহ শতাধিক অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করেছে জেলা প্রশাসন।
বৃহস্পতিবার (১৪ নভেম্বর) বিকালে সদর সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ শাহরিয়ার মুক্তারের নেতৃত্বে অভিযানে এসব স্থাপনাগুলো গুড়িয়ে দেওয়া হয়েছে।
হোটেল মোটেল জোনের ১ নং সড়কের ১১,১২,১৩ নং প্লটের অংশ বিশেষ দখল কর স্থানীয় বেশ কিছু প্রভাবশালী লোক অবৈধ বসতবাড়ি, গুদামঘর ইত্যাদি স্থাপনা নির্মাণ করে ভাড়া দিয়েছিল।
বিশেষ করে প্রাসাদ প্যারাডাইসের কর্তৃপক্ষ তাদের সীমানা দেয়ালের পূর্বদিকে ভেঙ্গে বিরাট একটি গুদাম ঘর তৈরি করে, যা দেখে অভিযান কারীরা হতবাক বনে যান।
এর আগে বুধবার (১৩ নভেম্বর) সুগন্ধা পয়েন্টে বাতিলকৃত পাঁচটি প্লটের ৫ একর জমি থেকে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করে জেলা প্রশাসন।
সদর সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোঃ শাহরিয়ার মুক্তার জানান, বুধবার সকাল থেকে রাত পর্যন্ত সুগন্ধা পয়েন্টে পাঁচটি বাতিলকৃত প্লটে এই অভিযান চলে। এতে বড় ধরণের ১০টি স্থাপনা, আর ২০টি মতো ঝুপড়ি উচ্ছেদ করা হয়। এ সময় ৩ জনকে ছয় হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। ওই দিন মাইকিং করে নিজ দায়িত্বে মালামাল সরিয়ে নিতে বলার পরও নির্দেশ মানেননি দখলদাররা। একারণে বৃহস্পতিবার বিকালে অভিযান চালিয়ে শতাধিক ছোট বড় স্থাপনা গুড়িয়ে দেয়া হয়েছে।
সরকারি জমি উদ্ধারে অভিযান অব্যাহত থাকবে বলেও জানান এসিল্যান্ড মোঃ শাহরিয়ার মুক্তার।
অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মোহাম্মদ আশরাফুল আফসার জানান, হোটেল-মোটেল জোনসহ পুরো কলাতলীতে কোন ধরনের অবৈধ স্থাপনা থাকবে না। কৌশলে যারা মামলা দিয়ে সরকারি জমি দখল করতে চাচ্ছে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।
এডিসি বলেন, একটি চক্র দীর্ঘদিন ধরে সরকারি জমিতে অবৈধভাবে ঝুপড়ির স্থাপনা তৈরি করে বাণিজ্য করছে দীর্ঘদিনের অভিযোগ।
প্রশাসন এসব দখলবাজদের চিহ্নিত করেছে। এর মধ্যে অভিযান শুরু হয়েছে। ক্রমান্বয়ে সকল অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হবে বলে জানান ভারপ্রাপ্ত জেলা প্রশাসক।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •