বিভিন্ন পত্রিকা এবং অনলাইন পোর্টালে ‘সুগন্ধা পয়েন্টে হাজী জসিমের নেতৃত্বে চলছে দখল’ শীর্ষক সংবাদটি আমার দৃষ্টিগোচর হয়েছে। সংবাদটি সম্পূর্ণ মিথ্যা, বানোয়াট, ভিত্তিহীন, ষড়যন্ত্রমূলক ও উদ্দেশ্যপ্রণোদিত।

প্রকৃত ঘটনা হচ্ছে, আমি একজন রাজনীতিবিদ। বর্তমানে কক্সবাজার জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের কৃষি বিষয়ক সম্পাদক। ছাত্রজীবনের কক্সবাজার সরকারি কলেজ ছাত্রলীগের যুগ্ম-আহ্বায়ক ও জেলা ছাত্রলীগের সমাজ কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদকসহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করেছি। বর্তমানে রাজনীতির পাশাপাশি কর্ম হিসেবে সুগন্ধা পয়েন্টে একটি ফিস ফ্রাইয়ের দোকান পরিচালনা করছি যার নাম ‘হাজী সী-ফুডস’। এই দোকান ছাড়া সুগন্ধা পয়েন্ট বা অন্য কোথাও আর কোনো ধরনের ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান নেই। এমনকি অন্য কোনোভাবেই কোনো দোকান বা প্রতিষ্ঠানের সাথে আমার কোনো ধরণের সংশ্লিষ্টতা নেই। সেই প্রেক্ষিতে সুগন্ধা পয়েন্টে আমার নেতৃত্বে দখল করার প্রশ্নই উঠে না এবং এ সংক্রান্ত কোনো ঘটনাও ঘটেনি। মূলত আমি সুগন্ধা পয়েন্ট ‘বৃহত্তর শুটকি, রেস্টুরেন্ট, ফিস ফ্রাই সমিতির’ সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্বরত আছি। আমার ব্যবসায়িক সাফল্য এবং নেতৃত্বের কারণে একটি মহল ঈর্ষান্বিত হয়ে আমার বিরুদ্ধে নানা অপপ্রচার চালাচ্ছে। এর অংশ হিসেবে সাংবাদিকদের মিথ্যা তথ্য দিয়ে আমার বিরুদ্ধে ভুয়া, ভিত্তিহীন ও মিথ্যা সংবাদ পরিবেশন করেছে।

আমি দৃঢ়তার বলতে চাই, আমি অবৈধভাবে কোনো দখলদারিত্বের সাথে বিন্দুমাত্র জড়িত নেই। বৈধভাবে আমি সামান্য ফিস ফ্রাইয়ের ব্যবসা করে যাচ্ছি।

পরিশেষে আমি আমার বিরুদ্ধে প্রকাশিত মিথ্যা সংবাদের বিরুদ্ধে তীব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছি এবং এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট কাউকে বিভ্রান্ত না হওয়ার অনুরোধ করছি।

প্রতিবাদকারী
হাজী জসিম উদ্দীন
কৃষি বিষয়ক সম্পাদক- কক্সবাজার জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগ এবং সাধারণ সম্পাদক- বৃহত্তর শুটকি, রেস্টুরেন্ট, ফিস ফ্রাই সমিতি।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •