লোহাগাড়া প্রতিনিধি:

লোহাগাড়ার চুনতি ইউনিয়নের নারিশ্চা গ্রামের চাকমার জোন এলাকায় কাদা মাটিতে আটকা পড়া ‘গ্যাংগ্রিন’ (পচনশীল ঘা) রোগে আক্রান্ত সেই বন্যহাতির মৃত্যু হয়েছে।

গত ১০ নভেম্বর রবিবার ভোরে হাতিটি মারা গেছে বলে সাংবাদিকদের জানিয়েছেন পদুয়া ফরেষ্ট রেঞ্জের আওতাধীন ডলু বনবিট কর্মকর্তা মোবারক হোসেন।

তিনি জানান, ৯ নভেম্বর বিকেল ৩টায় কাদায় আটকা পড়া বন্যহাতিটি উদ্ধার করে শুকনা জায়গায় নিয়ে যাওয়া হয়। পরে ধোয়া-মোছা শেষে চকরিয়া উপজেলার দুলাহাজারা বঙ্গবন্ধু সাফারী পার্কের ভেটরিনারী সার্জন মোস্তফিজুর রহমানের তত্ত্বাবধানে চিকিৎসাসেবা দেয়া হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় হাতিটি মারা যায়।

তিনি আরো জানান, ময়নাতদন্ত শেষে একইদিন বেলা সাড়ে ৩টায় হাতিটিকে মাটি চাপা দেয়া হয়েছে। হাতিটি উদ্ধার তৎপরতা ও চিকিৎসাসেবায় কোন ত্র“টি ছিল না।

এদিকে, পুটিবিলা বঙ্গবন্ধু স্মৃতি পরিষদের সভাপতি আ.স.ম দিদারুল আলম ও স্থানীয় মুহাম্মদ তপছির উদ্দিন জানান, ডলু বনবিট অফিসের কর্মকর্তাদের অবহেলার কারণে বন্যহাতিটির মৃত্যু হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত ৮ নভেম্বর শুক্রবার কাদা মাটিতে আটকা পড়ে এক বন্যহাতি। পরদিন ৯ নভেম্বর শনিবার হাতিটি উদ্ধার করা হয়।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •