শুক্রবার (৮ নভেম্বর) কক্সবাজারের স্থানীয় দৈনিক ইনানী পত্রিকায় ‘হোটেল বয় থেকে কোটিপতি শালিক রেস্তোঁরার মালিক নাছির’ শিরোনামে প্রকাশিত সংবাদটি আমার দৃষ্টিগোচর হয়েছে। যা সম্পূর্ণ মিথ্যা, বানোয়াট ও উদ্দেশ্য প্রণোদিত। মূলত দৈনিক ইনানী বিগত ৬ মাস যাবত আমার প্রতিষ্ঠান শালিক রেস্তোঁরার বিজ্ঞাপন মাসিক ২ হাজার টাকা চুক্তিতে ছাপিয়ে আসছে। গত মাসে তারা ৪ হাজার টাকার একটি বিল প্রদান করে। ওই সময় আমি বিলের ৩ হাজার টাকা পরিশোধ করি। এবং অনুরোধ করি বিজ্ঞাপন আর না ছাপাতে। বিজ্ঞাপন ছাপানো বন্ধ না করে তারা গত ১ নভেম্বর বাকি ১ হাজার টাকাসহ মোট ৪ হাজার টাকার বিল দেয়। বিজ্ঞাপন বন্ধ না করার পরও বিল দেয়ায় আমি কিছু বলিনি। তারপরও আমি বিজ্ঞাপন ম্যানেজারকে ২ হাজার টাকা দিতে চাইলে তিনি না নিয়ে চলে যান। বিষয়টি আমি দৈনিক ইনানীর ব্যবস্থাপনা সম্পাদক ও বার্তা প্রধান শফিউল্লাহ শফিকে ফোনে অবহিত করি। কিন্তু তাতে ক্ষিপ্ত হয়েই আমার বিরুদ্ধে মাদকের সংশ্লিষ্ঠতা এনে নিউজ করা হয়। যা জনমনে হাস্যরসে সৃষ্টি হয়েছে। সংবাদে উল্লেখ করা হয়েছে মাদক ব্যবসা করে আমি কোটি টাকার মালিক বনেছি। চন্দ্রিমা ও বান্দরবানে জমি কিনেছি। প্রকৃত পক্ষে চন্দ্রিমা ও বান্দরবানে আমার কোন জমি নেই। পৈত্রিক সম্পত্তি বিক্রি করে বিগত ১০ বছর ধরে শালিক রেস্তোঁরা সততা ও নিষ্ঠার সাথে পরিচালনা করে আসছি। আমার দীর্ঘদিনের পরিশ্রমের ফলে মিলেছে সফলতা। আজ আমার যা কিছু অর্জন সব রেস্তোঁরা ব্যবসা থেকে। কোন অবৈধ পথ আমাকে ছুঁতে পারেনি। আমি কোনদিন মাদকের সাথে জড়িত ছিলাম না। তাই ওই সংবাদে আমার মানহানি হয়েছে। পরবর্তীতে এমন ঘটনা ঘটলে আমি আইনের আশ্রয় নিতে বাধ্য থাকব। আমি প্রকাশিত ওই সংবাদের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। সেই সাথে মিথ্যা এই সংবাদ নিয়ে প্রশাসনসহ কাউকে বিভ্রান্ত না হওয়ার জন্য অনুরোধ করছি।

প্রতিবাদকারী

নাছির উদ্দিন

সত্বাধিকারি

শালিক রেস্তোঁরা, কলাতলী, কক্সবাজারা।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •