মুহাম্মদ আবু সিদ্দিক ওসমানী :

কক্সবাজার বিমানবন্দরের ঝুঁকি মোকাবিলায় পর্যাপ্ত ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। বিমানবন্দরের রানওয়ে ও খোলা জায়গায় থাকা সকল যন্ত্রপাতি সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। একইভাবে চট্টগ্রাম ও বরিশাল বিমানবন্দরেও সতর্কতা জারী করা হয়েছে।

ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’ এর কারণে দেশের বিমান বন্দরগুলোকে এই সতর্ক অবস্থানে থাকতে বলা হয়েছে। ঘূর্ণিঝড়ে সম্ভাব্য ক্ষয়ক্ষতি এড়াতে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে বলে সিবিএন-কে জানিয়েছেন, জানিয়েছেন বাংলাদেশ বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের কক্সবাজাররস্থ দায়িত্বশীল একজন কর্মকর্তা। তবে এ পর্যন্ত বিমান বন্দরগুলোর কার্যক্রম বন্ধ রাখা সংক্রান্ত কোনও সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি বলে জানিয়েছে একই কর্তৃপক্ষ।

বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের উক্ত কর্মকর্তা আরো বলেন, ঘূর্ণিঝড়ের সময় বিমানবন্দরে কী ব্যবস্থা নিতে হবে, তার স্ট্যান্ডার্ড অপারেটিং প্রসিডিউর আছে। আমরা সে অনুযায়ী ব্যবস্থা নিয়েছি। বৃহস্পতিবার ৭ অক্টোবর থেকেই দেশের সব বিমানবন্দরের পরিচালক, ম্যানেজারদের সঙ্গে কথা বলে প্রস্তুতি নিতে বলা হয়েছে। সার্বক্ষণিক খোঁজ রাখা হচ্ছে। এখন পর্যন্ত বিমানবন্দর বন্ধ করার মতো সিদ্ধান্ত হয়নি। আবহাওয়া পরিস্থিতি দেখে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

তিনি আরো বলেন, কক্সবাজার, চট্টগ্রাম ও বরিশাল বিমানবন্দরের ঝুঁকি মোকাবিলায় পর্যাপ্ত ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। বিমানবন্দরগুলোতে রানওয়ে ও খোলা জায়গায় থাকা যন্ত্রপাতি সরিয়ে নেওয়া হয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •