মো. নুরুল করিম আরমান, লামা প্রতিনিধি :

বান্দরবানের লামা উপজেলায় কদবানু বেগম (২৭) নামের এক গৃহবধূর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। শনিবার সকালে উপজেলার সরই ইউনিয়নের ডিগ্রিখোলাস্থ নিজ বসতঘর থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়। কদবানু বেগম ডিগ্রিখোলা গ্রামের বাসিন্দা মৃত সামছুল হকের মেয়ে ও তিন সন্তানের মা। এ ঘটনায় স্বামী কামাল হোসেনকে আটক করেছে পুলিশ। ঘটনাটি হত্যা নাকি আতœহত্যা এ নিয়ে স্থানীয়দের মাঝে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে।

সূত্র জানায়, শনিবার সকালে ঘুম থেকে উঠে ঘরের ভিতর মা কদবানু বেগমের লাশ ঝুলতে দেখে সন্তানেরা বাবা কামাল হোসেনসহ স্বজনদের জানায়। পরে খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করেন।

এদিকে নিহতের স্বজন ও স্থানীয়রা অভিযোগ করে জানায়, কামাল হোসেন সম্প্রতি বাড়ীর পাশে একটি মুরগি খামার গড়ে তুলেন। শ্রমিকের কাজ করতে যাওয়ায় শুক্রবার স্ত্রী কদবানু বেগম প্রতিদিনের মত খামারের মুরগিকে খাবার দিতে পারেনি। কাজ শেষে বাড়িতে ফিরলে স্ত্রী ও স্বামীর মধ্যে এ নিয়ে ঝগড়া হয়। এক পর্যায়ে স্বামী ক্ষিপ্ত হয়ে স্ত্রীকে বেধম মারধর করলে কদবানু মারা যান। পরে লাশ ঘরের বিমের সাথে ঝুঁলিয়ে রাখা হয়। তবে স্বামী কামাল হোসেনের দাবী, ঝগড়ার জের ধরে কদবানু বেগম রাতের কোন এক সময় গলায় ফাঁস লাগিয়ে আতœহত্যা করেছেন।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে লামা থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা অপ্পেলা রাজু নাহা বলেন, গৃহবধূ কদবানুর লাশ উদ্ধার করে প্রাথমিক সুরতহাল শেষে ময়নাতদন্তের জন্য বান্দরবান সদর মর্গে পাঠানো হয়েছে। একই সময় স্বামী কামাল হোসেনকে জিঙ্গাসাবাদের জন্য আটক করে পুলিশ। এ ঘটনায় তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •