বলরাম দাশ অনুপম :
জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষা শুরু হচ্ছে ২ নভেম্বর। কক্সবাজার জেলায় এবার জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষায় ৪৯টি কেন্দ্রে মোট ৪৫ হাজার ১০৫ জন পরীক্ষার্থী অংশগ্রহণ করবে। এবারে সুষ্টভাবে পরিক্ষা সম্পন্ন করতে সব ধরনের প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন কক্সবাজারের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি আল আমিন মোহাম্মদ পারভেজ। তিনি জানান-জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষা সংক্রান্ত সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে। কেন্দ্রে কেন্দ্রে প্রশ্নপত্র এবং উত্তরপত্র যথাসময়ে পৌঁছানো হবে। আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতেও যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
কক্সবাজার জেলায় কেন্দ্রওয়ারী পরীক্ষার্থীর সংখ্যা
জেলা প্রশাসনের শিক্ষা শাখা সূত্রে জানা যায়, জেএসসি পরীক্ষায় আট উপজেলার ৩৪ কেন্দ্রে মোট পরীক্ষার্থী ৩৩ হাজার ৪৭৬ জন। তারমধ্যে কক্সবাজার সদর উপজেলার কক্সবাজার সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয়ে পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ১ হাজার ৫৮৫ জন, ঈদগাহ আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ে ৯২১ জন, কক্সবাজার সরকারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে ২ হাজার ২৭ জন, ইদগাহ আদর্শ শিক্ষা নিকেতনে ৮১৯ জন এবং কক্সবাজার মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ে ১ হাজার ৯৭ জন। রামু উপজেলার রামু খিজারী মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ে পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ১১০০ জন, জোয়ারিয়ানালা এইচ.এম.সাঁচি উচ্চ বিদ্যালয়ে ৫৪৯ জন, রামু বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে ৭৭২ জন এবং গর্জনিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ে ৪৮৪ জন। চকরিয়া উপজেলার চকরিয়া সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয়ে পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ১ হাজার ৬৩২ জন, চকরিয়া সরকারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে ১৬৫৭ জন, ডুলাহাজারা বহুমূখী উচ্চ বিদ্যালয়ে ১০৩৫ জন, চকরিয়া কোরক বিদ্যাপীঠে ১৫১৯ জন, ইলিশিয়া জমিলা বেগম উচ্চ বিদ্যালয়ে ৬৪৮ জন এবং চকরিয়া কেন্দ্রীয় উচ্চ বিদ্যালয়ে ১২৪৭ জন। কুতুবদিয়া উপজেলার কুতুবদিয়া সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ৩৭১ জন এবং ধুরং আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ে ৮২৫ জন, কুৃতুবদিয়া আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ে মোট পরীক্ষার্থী ৫৮৭ জন। মহেশখালী উপজেলার মহেশখালী সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ১১৮৮ জন, কালামারছড়া উচ্চ বিদ্যালয়ে ১৮৫৯ জন এবং মাতারবাড়ী উচ্চ বিদ্যালয়ে ৭০৪ জন, বড় মহেশখালী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে মোট পরীক্ষার্থী ৬৪২। উখিয়া উপজেলার উখিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ে পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ১১৬৯ জন, উখিয়া বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে ৬২৭ জন, কুতুপালং আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ে ৪৪৩ জন এবং পালং আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ে ১৬০৮ জন। টেকনাফ উপজেলার টেকনাফ পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ে পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ১১৫৭ জন এবং আলহাজ্ব আলী আছিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ে ৭০২ জন, এজাহার বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে ১০২০ জন। পেকুয়া উপজেলার পেকুয়া জি,এম, সি ইনস্টিটিউশনে ১৩০২ জন এবং পেকুয়া বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে ৮০৩ জন, শীলখালী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে মোট পরীক্ষার্থী ৮৯৫। এছাড়া জেডিসি পরীক্ষায় জেলায় ১২ কেন্দ্রে মোট পরীক্ষার্থী ১১৬২৯ জন। তার মধ্যে কক্সবাজার সদর উপজেলা মোট পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ইসলামিয়া মহিলা কামিল মাদ্রাসায় ৫৮৫ জন, কক্সবাজার মহিলা আদর্শ কামিল মাদরাসায় ৯২১ জন, ইদগাঁও আলমাছিয়া ফাজিল মাদরাসায় ৯৮৪ জন। চকরিয়া উপজেলার মোট পরীক্ষার্থীর সংখ্যা চকরিয়া আনওয়ারুল উলুম ফাজিল মাদরাসায় ১৫১৮ জন, পহরচাঁদা ফাজিল মাদরাসায় ৩৪৩ জন, আমজাদিয়া রফিকুল উলুম মাদ্রাসায় ৬৪১ জন। কুতুবদিয়া উপজেলায় মোট পরীক্ষার্থীর সংখ্যা কুতুবদিয়া বড়ঘোপ ইসলামিয়া ফাজিল মাদরাসায় ৬৩২ জন। মহেশখালী উপজেলায় মোট পরীক্ষার্থীর সংখ্যা মহেশখালী পুটিবিলা ইসলামিয়া ফাজিল মাদ্রাসায় ৮০৭ জন এবং কালামারছড়া মাইনুল ইসলাম আলিম মাদ্রাসায় ৬৩৬ জন। টেকনাফ উপজেলার টেকনাফ রঙ্গিখালী দারুল উলুম মাদরাসায় ৮৮৩ জন। পেকুয়া উপজেলায় মোট পরীক্ষার্থীর সংখ্যা পেকুয়া আনোয়ারুল উলুম আলিম মাদরাসায় ৮৮৩ জন এবং রাজাখালী বি, ইউ, আই ফাজিল মাদরাসায় ৮৮৭ জন। রামু উপজেলার রামু মেরংলোয়া রহমানিয়া ইসলামিয়া দাখিল মাদরাসায় ৬৬৭ জন এবং গর্জনিয়া ফয়জুল উলুম আলিম মাদরাসায় ৫০৮ জন পরীক্ষার্থী অংশ নিচ্ছে। উখিয়া উপজেলায় উখিয়া রাজাপালং এমইউ ফাজিল মাদরাসায় ৮৩৭ জন পরীক্ষার্থী অংশ নিচ্ছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •