আব্দুস সালাম,টেকনাফ :
টেকনাফ হোয়াইক্যংয়ে নারী নির্যাতন ও বাল্য বিবাহ রোধে তারুণ্যের ভূমিকা শীর্ষক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। ৩১অক্টোবর বৃহস্পতিবার সকাল ১০ টায় নয়াবাজার উচ্চ বিদ্যালয়ের হোয়াইক্যং কমিউনিটি পুলিশিং ও ইয়ুর্থ ফোরামের উদ্যোগে ইউএনডিপি দাতা সংস্থার সহযোগীতায় কক্সবাজার জেলা প্রজেক্ট কো-অর্ডিনেটর মোঃ কেফায়েত উল্লাহর সঞ্চালনায় হোয়াইক্যং কমিউনিটি পুলিশিংয়ের যুগ্ন-সম্পাদক ও নয়াবাজার উচ্চ বিদ্যালয় পর্ষদের সভাপতি অধ্যাপক গিয়াস উদ্দিন চৌধুরী’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন টেকনাফ উপজেলা কমিউনিটি পুলিশিংয়ের সভাপতি ও মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব নুরুল হুদা।
বিশেষ অতিথি বক্তব্য রাখেন,টেকনাফ উপজেলা কমিউনিটি পুলিশিংয়ের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক
নুরুল হোসাইন, হোয়াইক্যং কমিউনিটি পুলিশিংয়ের সভাপতি হারুনুর রশিদ সিকদার,নয়াবাজার উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রুপন কান্তি দে,সহকারী প্রধান শিক্ষক ফরিদুল আলম।
অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, হোয়াইক্যং ইয়ুর্থ ফোরামের সভাপতি মোঃ সালমান, সাধারণ সম্পাদক এমদাদ হোসেন।
এসময় উপস্থিত ছিলেন, নয়াবাজার উচ্চ বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদের সদস্য আনোয়ারুল ইসলাম মেম্বার,আব্দুল জব্বার মেম্বার,সাংবাদিক সাইফুদ্দিন মোঃ মামুন, ইয়াছিন আরাফাত,শহিদুল ইসলাম শহিদ ও বিদ্যালয়ের সকল ছাত্র ছাত্রীবৃন্দ।
নুরুল হোসাইন বক্তব্যে বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মাদকের বিরুদ্ধে জিরো ট্রলারেন্স ঘোষণা করায় সারাদেশের ন্যায় টেকনাফে মাদক, ইভটিজিং ও বাল্য বিবাহ,নারী নির্যাতন মুক্ত করতে কমিউনিটি পুলিশিং ফোরামের প্রতিটি সদস্যসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সমন্বয়ে অভিযান অব্যাহত রাখতে হবে। মাদকের বিরুদ্ধে সকলকে এগিয়ে আসতে হবে কোন অপরাধী টেকনাফে থাকতে পারবেনা। স্কুল চলাকালীন সময়ে কোন বখাটে ছেলে যদি ছাত্রীদেরকে ইভটিজিং করে সাথে সাথে আমাদেরকে ফোন করে বিষয়টি অবহিত করবেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে নুরুল হুদা বলেন,জেন্ডার ভিত্তিক অপরাধ, বিশেষ করে সমাজের নারী ও শিশুরা নানা অনাকাঙ্খিত অত্যাচার নির্যাতনের শিকার হচ্ছে। এটা আসলে ঠিক নয়। কেউ আইন নিজের হাতে তুলে নেবেন না বা ঠুনকো অপরাধে অপ্রাপ্ত বয়স্ক শিশুদের অত্যাচার করা যাবে না।
তিনি আরো বলেন, ইভটিজিং প্রতিরোধ করতে হলে আগে নিজেদের সচেতন হতে হবে। যেমন বাড়ি থেকে বের হয়ে স্কুলে আসার আগে মেয়ে শিক্ষার্থীদের দলবেঁধে আসতে হবে। যদি পথে-ঘাটে ইভটিজিংয়ের শিকার হয় তাহলে প্রথমে কঠিন ভাবে প্রতিবাদ করতে হবে। পরবর্তীতে পুলিশকে জানাতে হবে। বাল্যবিবাহ ঠেকাতে নিজেদের সাহসী, কৌশলী ও উদ্যোগী হতে হবে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •