শাহেদ মিজান, সিবিএন:

কক্সবাজার সদর উপজেলার চৌফলদন্ডী ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য (মেম্বার) একরাম মিয়া প্রকাশ একরাম মেম্বারের লাশ পাওয়া গেছে কক্সবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে। এর আগে গত ২৯ অক্টোবর কক্সবাজার সদর উপজেলার গেইট থেকে তিনি নিখোঁজ হয়েছিলেন। তার ছোটভাই নূরুল আজিমের বরাত দিয়ে স্থানীয় সাংবাদিক এইচ এন আলম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

সদর হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়,  বৃহষ্পতিবার  ৩ টার দিকে কক্সবাজার শহরের  বড়ছড়া এলাকা থেকে তার মৃতদেহটি উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে নিয়ে আসে বলে জানায় স্থানীয় লোকজন।

একরাম মিয়ার ছোটভাই নূরুল আজিমের জানান, গত ২৯ অক্টোবর পরিষদের উপজেলা পরিষদের গিয়েছিলেন একরাম মিয়া মেম্বার। সেখান থেকে সকাল ১১টায় একদল সাদা পোশাকধারী নোহা গাড়িতে করে তাকে তুলে নিয়ে যায়। সেই থেকে বিভিন্ন জায়গায় খোঁজাখুঁজি করেও তার সন্ধান পাননি পরিবারের লোকজন। এর মধ্যে আজ বৃহস্পতিবার বিকালের দিকে তার লাশ কক্সবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে পড়ে থাকার খবর পায় পরিবারের লোকজন। পরে তারা মর্গে গিয়ে নিশ্চিত হন। তার শরীরে গুলি আঘাত রয়েছে বলে জানান ছোটভাই নূরুল আজিম।

নিহত একরাম মেম্বারের দুই স্ত্রী এবং এক ছেলে ও দুই মেয়ে রয়েছে।

থানা সূত্র জানা গেছে, একরাম মিয়ার বিরুদ্ধে কক্সবাজার সদর মডেল থানাসহ বিভিন্ন থানা ও কোর্টে ১৩/১৪ টি মত মামলা রয়েছে বলে জানতে পারে পুলিশ। মানবপাচার, খুন, অস্ত্র, ডাকাতি, ছিনতাই, চাঁদাবাজি, নাশকতা,সার পাচার, মারধরসহ বিভিন্ন মামলার ওয়ারেন্ট ভুক্ত আসামী ছিল একরাম।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •