প্রেস বিজ্ঞপ্তি :

কক্সবাজার জেলার ঐতিহ্যবাহী ও বৃহত্তম শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বায়তুশ শরফ জব্বারিয়া একাডেমীতে ২৭ থেকে ২৯ অক্টোবর ২০১৯ ইংরেজী তারিখ পর্যন্ত ৩ দিন ব্যাপী স্কাউটের ব্যাজ কোর্স ও দীক্ষা অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়। এ প্রশিক্ষণের মাধ্যমে শিক্ষার্থীরা স্কাউট আন্দোলনে প্রবেশ করল। ৪৮ জন শিক্ষার্থী (তৎমধ্যে ১৫ জন গার্ল ইন স্কাউট ও ৩৩ জন স্কাউট) সদস্য ব্যাজ অর্জনের মাধ্যমে স্কাউট দীক্ষা গ্রহণ করে স্কাউটের মূলনীতি অন্তরে ধারণ করে দেশ জাতি ও মানবতার সেবায় আত্মনিয়োগ করার শপথ গ্রহণ করে। এ দীক্ষা অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন কক্সবাজার বায়তুশ শরফ কমপ্লেক্সের মহাপরিচালক ও একাডেমী পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি শিক্ষাবিদ এম এম সিরাজুল ইসলাম। তিনি বলেন, স্কাউট একটি যুব আন্দোলন। নতুন প্রজন্মের শিক্ষার্থীরা স্কাউটিং এর শিক্ষা গ্রহণ করে দুর্নীতি, মাদক, ইভটিজিং ও নৈতিক অবক্ষয় মুক্ত সমাজ গঠনের জন্য অবদান রাখতে পারবে। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন জেলা স্কাউটসের সহ-সভাপতি ও কক্সবাজার জেলা ও দায়রা জজ আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) এডভোকেট ফরিদুল আলম। তিনি বলেন, এক বিংশ শতাব্দীর চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় স্কাউটিং এর অবদান অনস্বীকার্য। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর স্বপ্নের সোনার বাংলাদেশ গড়ে তোলতে একদল সুশৃংখল স্বেচ্ছাসেবক হিসাবে স্কাউট সদস্যরা অগ্রণী ভূমিকা পালন করতে পারবে। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন, একাডেমীর প্রধান শিক্ষক মোহাম্মদ ছৈয়দ করিম, বাংলাদেশ স্কাউটস কক্সবাজার জেলার সহকারী পরিচালক মোঃ শরীফ হোসেন, কোষাধ্যক্ষ ফরিদুল আলম উড ব্যাজার, সদর উপজেলা স্কাউটসের সম্পাদক ইব্রাহিম খলিল উড ব্যাজার, একাডেমীর সহকারী প্রধান শিক্ষক মোহাম্মদ তৈয়ব, অনুষ্ঠানের প্রশিক্ষকের দায়িত্ব পালন করেন স্কাউটার হাবিবুল হক এলটি, আ.ন.ম আজগর হোসাইন এলটি, অত্র একাডেমীর স্কাউট ইউনিট লিডার আবুল কাশেম উড ব্যাজার, নবাগত স্কাউটারদের ব্যাজ ও স্কার্ফ পরিধানের মাধ্যমে দীক্ষা প্রদান করেন। অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, একাডেমীর শিক্ষক, স্কাউটারদের অভিভাবক ও শিক্ষার্থীবৃন্দ।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •