প্রথমআলো:

সাকিব আল হাসানকে নিয়ে আইসিসির তদন্তের ঘটনায় চারদিকে তোলপাড়। এ নিয়ে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) আনুষ্ঠানিক কিছু না জানালেও তারা আইসিসির সিদ্ধান্তের অপেক্ষায় আছে। তবে প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এক সাংবাদিকের প্রশ্নের জবাবে বলেছেন, তাঁদের পক্ষে সাকিবের ব্যাপারে খুব বেশি কিছু করার নেই।

আজারবাইজান সফরের বিস্তারিত জানাতে ডাকা সংবাদ সম্মেলনের প্রশ্নোত্তর পর্বে প্রথমেই সাকিব আল হাসানের প্রসঙ্গ এসেছে। সেখানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘বিসিবি সব সময় সাকিবের সঙ্গে আছে এবং তাঁকে সব ধরনের সহযোগিতা করবে। ক্রিকেট খেলোয়াড়দের সঙ্গে জুয়ারিরা যোগাযোগ করে। ওর যেটা ভুল হয়েছে যখন যোগাযোগ করা হয়েছে তখন বিষয়টি বিশেষ গুরুত্ব দেয়নি। সে কথাটি আইসিসিকে জানায়নি। নিয়মটা হচ্ছে সঙ্গে সঙ্গে জানানো উচিত ছিল। সে এটাই ভুল করেছে। আইসিসি যদি অবস্থান নেয়, সে ক্ষেত্রে আমাদের তো খুব বেশি কিছু করণীয় থাকে না। যেহেতু আমাদের দেশের ক্রিকেটার এবং খেলোয়াড় হিসেবে তার একটি অবস্থান আছে। সে ভুল করেছে, এটা ঠিক। সে সেটা বুঝতেও পেরেছে। আর বিসিবি বলেছে তাঁর পাশে তারা থাকবে। এর চেয়ে খুব বেশি যে করণীয় কিছু আছে তা কিন্তু না।’

এছাড়া ক্রিকেটারদের দাবি-দাওয়ার আন্দোলন প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, ‘তাঁদের যদি দাবি দাওয়া থাকত তাহলে পূর্বেই জানাতে পারত। বিসিবিকে জানাতে পারত। কিন্তু সেটা করেনি। কথা নেই বার্তা নেই, ধর্মঘটের ডাক দিয়েছে। আমি এর আগে কখনো শুনিনি ক্রিকেট খেলোয়াড়েরা ধর্মঘট করে। আর ধর্মঘট করতে হলে তো পূর্বে দাবিদাওয়া উত্থাপন করে, একটা সময় দেয়, নোটিশ দেয়, তারপর করে। পরবর্তীতে আলোচনা হয়েছে, তাঁরা গেছেন এবং মিটমাট করা হয়েছে সে সমস্যা। এ সমস্যা আর নেই। আমরা বা বিসিবি খেলোয়ারদের যেভাবে সমর্থন দেই, পৃথিবীর খুব কম দেশ তা করে।’

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •