মুহাম্মদ আবু সিদ্দিক ওসমানী :

বিদায়ী মন্ত্রীপরিষদ সচিব শফিউল আলম গণমাধ্যম কর্মীদের উদ্দেশ্যে বলেছেন, ‘কাজের সময়ে আমি সংবাদকর্মীদের কাছ থেকে যথেষ্ট সহযোগিতা পেয়েছি। আমরা যে সরকারি চাকরি করি, আর আপনারা যে বেসরকারি খাতে চাকরি করেন, কাজ করতে এসে সেটা আমার মোটেও মনে হয়নি। মনে হয়েছে, আমরা সবাই এক পরিবারের লোক। আপনারা আমার জন্য দোয়া করবেন। ভুলভ্রান্তি হলে ক্ষমা করে দেবেন।’
মন্ত্রিপরিষদ সচিব হিসেবে মোহাম্মদ শফিউল আলমের সোমবার ২৮ অক্টোবর সকালে শেষ কর্ম দিবসে মন্ত্রীপরিষদের সভাশেষে গণমাধ্যমকে ব্রিফিংকালে তিনি একথা বলেন। প্রেস ব্রিফিং এ তিনি আরো বলেন, আমি দায়িত্বে থাকার সময় প্রশাসনের কাজের উন্নতি হয়েছে। আমরা দিনের কাজ দিনেই শেষ করেছি।
মন্ত্রীপরিষদ সচিবের মর্যাদায় বিশ্ব ব্যাংকের বিকল্প নির্বাহী পরিচালক হিসাবে নতুন দায়িত্ব নিতে সোমবার ২৮ অক্টোবর দিবাগত শেষ রাতেই ওয়াশিংটনের উদ্দেশে দেশ ছাড়ছেন বিদায়ী ২১ তম কেবিনেট সেক্রেটারি মোহাম্মদ শফিউল আলম। বিশ্বব্যাংকের বাংলাদেশের বিকল্প পরিচালক হিসেবে ১ নভেম্বর থেকে পরবর্তী ৩ বছরের জন্য তাঁকে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে।

সোমবার সকালে প্রধানমন্ত্রীর তেজগাঁও কার্যালয়ে মন্ত্রিপরিষদের এই বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠক শেষে যথারীতি সচিবালয়ে তিনি প্রেস ব্রিফিং করেন।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব হিসেবে ২০১৫ সালের ২৯ অক্টোবর মোহাম্মদ শফিউল আলমকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছিল। সে হিসেবে তিনি পূর্ণ চার বছর দায়িত্ব পালন করেছেন মন্ত্রীপরিষদ সচিব হিসেবে।

যথাযথভাবে দায়িত্ব পালনের জন্য মন্ত্রিপরিষদের বৈঠক শুরুর আগে মোহাম্মদ শফিউল আলম ও অবসরে যাওয়া আইন মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব (লেজিসলেটিভ) শহীদুল হককে ধন্যবাদ জানানো হয়েছে। সিনিয়র সচিব শহীদুল হক ২৯ অক্টোবর থেকে অবসরে যাচ্ছেন।

১৯৭২ সালের মন্ত্রিসভা বৈঠকের কার্যবিবরণী গ্রহণ প্রধানমন্ত্রীর কাছে হস্তান্তর :
১৯৭২ সালে অনুষ্ঠিত মন্ত্রিসভা বৈঠকের ৩ কপি কার্যবিবরণী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে হস্তান্তর করা হয়েছে।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম সোমবার ২৮ অক্টোবর মন্ত্রিসভা বৈঠকের শুরুতে ১৯৭২ সালের বৈঠকসমূহের মূল ইংরেজি থেকে স্ক্যান করা ১ কপি, এর নতুন ইংরেজি কপি এবং বাংলা অনুবাদ প্রধানমন্ত্রীর হাতে তুলে দেন।

এছাড়া মন্ত্রিপরিষদ সচিব মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের গুরুত্বপূর্ণ সব কর্মকান্ডের চেক-লিস্টের একটি কপিও প্রধানমন্ত্রীকে দেন তিনি।

আইসিটি বিভাগ প্রণীত কৌশলপত্রের একটি কপিও প্রধানমন্ত্রীকে দেওয়া হয়। আইসিটি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলক ও এ বিভাগের সচিব প্রণীত কপিটি প্রধানমন্ত্রীর হাতে তুলে দেন।

সকল পর্যায়ে তথ্য প্রযুক্তির ব্যবহার নিশ্চিত করতে গৃহীত কর্মপরিকল্পনার আলোকে এই কৌশলপত্র প্রণয়ন করা হয়। প্রতিমন্ত্রী ও আইসিটি বিভাগের সচিব প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ-অগ্রগতির ১০ বছর’ শীর্ষক একটি প্রকাশনাও প্রধানমন্ত্রীর হাতে তুলে দেন। এসময়
মন্ত্রীবর্গ, প্রতিমন্ত্রীবৃন্দ ও সংশ্লিষ্ট সচিবগণ বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন।

নতুন কেবিনেট সেক্রেটারি খন্দকার আনোয়ারুল ইসলামকে দায়িত্ব হস্তান্তর :

মন্ত্রীসভার সিদ্ধান্তের প্রেস ব্রিফিং শেষে বিদায়ী কেবিনেট সেক্রেটারি মোহাম্মদ শফিউল আলম নতুন নিয়োগ পাওয়া দেশের ২২ তম কেবিনেট সেক্রেটারি খন্দকার আনোয়ারুল ইসলামকে দায়িত্ব হস্তান্তর করেন। দায়িত্ব হস্তান্তরকালে কেবিনেট ডিভিশনের সকল কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা আবেগে আপ্লূত হয়ে পড়েন। পরে অপরাহ্নে সুদীর্ঘ তিন যুগের আমলাতান্ত্রিক জীবন শেষে সফল আমলা ও কক্সবাজারবাসীর গর্বের ধন মোহাম্মদ শফিউল আলম সচিবালয় ত্যাগ করেন। এদিকে, নতুন যোগদান করা কেবিনেট সেক্রেটারি খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম মঙ্গলবার ২৯ অক্টোবর বিকেল সাড়ে ৩ টায় মন্ত্রীপরিষদ বিভাগের চতুর্থ তলা ৩০৪ সভাকক্ষে সকল কর্মকর্তাদের মতবিনিময় সভা আহবান করেছেন। মতবিনিময় সভায় নতুন কেবিনেট সেক্রেটারি খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম সভাপতিত্ব করবেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •