নুরুল আমিন হেলালী :
কক্সবাজার সদরের ব্যস্ততম বাণিজ্যিক উপশহর খ্যাত ঈদগাঁও বাস স্টেশন জুড়ে অবৈধ কাউন্টার ও যত্রতত্র গাড়ি পার্কিং এর ফলে লেগে থাকে নিত্য যানজট। প্রধান সড়ক কিংবা বাজার কেন্দ্রিক উপসড়ক সার্বক্ষনিক যানজটের যাতাকলে পড়ে স্তবির হয়ে থাকে দীর্ঘক্ষণ। এছাড়া স্টেশন কেন্দ্রিক মহাসড়কের দুই পাশে দোকানের সামনে ঝুপড়ি দিয়ে সড়ক দখল করে দোকান বের করার কারণেও যানজট বেড়েছে বলে জানান ভুক্তভোগীরা। পথচারীদের মতে সড়কের ফুটপাত দখল করে দোকান বসায় ফুটপাত খুজে পাওয়া মুশকিল ফলে ঝুকি নিয়ে চলাচল করতে হচ্ছে শিক্ষা প্রতিষ্টানগামী শিক্ষার্থী ও পথচারীদের। অনেকর মতে ঈদগাঁওতে যানজটের মুলতঃ দুটি কারণই প্রত্যক্ষ। একটি হচ্ছে ট্রাফিক সিস্টেমের অব্যবস্থাপনা আর অন্যটি হচ্ছে সড়কজুড়ে অবৈধ কাউন্টার ও যত্রতত্র পার্কিং। এছাড়া সড়কের উপর যত্রতত্র সিএনজি,টমটম,রিক্সাসহ ছোট-বড় বিভিন্ন যানবাহনের যাত্রী উঠানামার কারণে দৈনন্দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে এই যন্ত্রণাদায়ক যানজট। অন্যদিকে স্টেশন কেন্দ্রিক গড়ে উঠা মার্কেটের দ্বিতীয় তলায় অবস্থিত ভিশন শো রুম ও কেজি স্কুল গেইটে গড়ে উঠা মার্কেটের দ্বিতীয় তলার ইলেক্ট্রনিক্স শো রুমের সিড়ি সরাসরি রাস্তার উপর দেয়ায় শিক্ষার্থী ও পথচারীদের চলাচলে দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। যেন দেখার কেউ নেই। এছাড়া সব মার্কেটের সামনে ঝুপড়ি দিয়ে সড়কের উপর ভাসমান দোকান ভাড়া দেয়ায় স্টেশন জুড়েই নিত্য যানজট। অন্যদিকে ফুটপাতের উপর যত্রতত্র অস্থায়ী পার্কিংয়ে যখন তখন যাত্রী উঠানামার কারণে যান ও জন চলাচলে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি হচ্ছে। ফুটপাত দখল করে অঘোষিত পার্কিং স্টেশন করায় যানজট লেগে থাকে ঈদগাঁও বাস স্টেশনে। সরেজমিনে দেখা গেছে, স্টেশন সংলগ্ন মহাসড়কের উভয় পাশে গড়ে উঠেছে সিএনজি, টমটম, মাহিন্দ্রা, মাইক্রোবাস, আলীরাজ সার্ভিস, সী-লাইন, ঈদগাহ লাইন, হিল লাইনসহ দুর পাল্লার ও স্বল্প দুরত্বের ছোট-বড় অসংখ্য যানবাহনের অবৈধ কাউন্টার ও অস্থায়ী পার্কিং স্টেশন। ফলে তৈরী হয় যন্ত্রণাদায়ক যানজট। স্টেশন সংলগ্ন যাত্রী ছাউনির সামনে যানজট নিরসনে ঠাঁই দাঁড়িয়ে থাকা কয়েক পুলিশ সদস্যের দেখা মিললেও কাজের কাজ কিছুই হচ্ছে না। ঈদগাঁও ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সাধারন সম্পাদক তারেক আজিজ বলেন, ঈদগাহ এখন থানা হয়েছে, শীঘ্রই উপজেলা ঘোষনা হবে এরপর পুর্ণাঙ্গ ট্রাফিক সিস্টেম চালু হলে হয়ত এই অসহনীয় যানজট থেকে মুক্তি পাবে ঈদগাহবাসী। অপরদিকে যানজটের অভিশাপ থেকে মুক্তি পেতে সড়কের উভয়পাশের দখল উচ্ছেদ পুর্বক রাস্তার উপর গড়ে উঠা কাউন্টারগুলো অন্যত্র সরিয়ে নিতে সংশ্লিষ্ট প্রসাশনের হস্তক্ষেপ কামনা করেন সচেতন মহল।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •