মুফিজুর রহমান, নাইক্ষ্যংছড়ি :

বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়িতে কারেন্ট পোকার আক্রমণে ধান ক্ষেত জলে পুড়ে সর্বনাশ হয়ে গেছে। হতাশ হয়ে পড়েছে কৃষকরা। পোকার আক্রমণ থেকে ফসল বাচাতে মরিয়া হয়ে উঠেছে কৃষকেরা। বিভিন্ন প্রকার কিটনাশক ছিটিয়েও শেষ রক্ষা হয়নি। পুরো ধান ধান ক্ষেত দেখলে মনে হবে কেউ বিষাক্ত গ্যাস ছিটিয়ে দিয়েছে।

বাইশারী ইউনিয়নের বাসিন্দ কৃষক জালাল আহাম্মদ জানান, ধান ক্ষেতে পোকার আক্রমন কোন রকমেই তিনি বুঝতে পারেননি। হঠাৎ ধানের গোড়া থেকে আগা পর্যন্ত লাল হয়ে সব ধান জলসে গেছে। বর্তমানে ধান সবে মাত্র শীষ বের হওয়ার পথে। এ অবস্থায় পুরো ধান ক্ষেত আস্তে আস্তে জমিনের সাথে শুয়ে যাচ্ছে।

কৃষক মোঃ ওসমান গনি জানান, তিনি ২ একর জমিতে চাষাবাদ করেছে ফলন ও ভাল হওয়ার পথে। কিন্তু বর্তমানে পোকার আক্রমনে তিনি সর্বশান্ত হয়ে গেছে। দির্ঘ দিনের কৃষি কাজের মান তিনি ধরে রাখতে পারে নাই। সোনালি ফসল ঘরে তোলা হবেনা বলে কান্নায় ভেংগে পড়েন। ছেলে মেয়ে সংসারে কি হবে আগামীতে তিনি চিন্তায় চিন্তায় দিন যাপন করছেন।

কৃষক আবদুর রশিদ জানান, এক বিঘা জমিতে চাষাবাদে ব্যয় দাড়ায় দশ হাজার। একদিকে ধানের নায্য মুল্য নেই। কৃষি কাজে ব্যায় প্রচুর। লাভ লোকসান প্রায় সমান সমান। তার পরও বাপ দাদার পেশা ধরে রেখেছি।

স্থানীয়রা জানান- এবছরের মত ধানের রোগ বালাই আার দেখি নাই। সরজমিনে গিয়ে কৃষকদের সাথে কথা বলে জানা যায় ধান খুব ভাল হয়েছিল। কিন্তু শেষ পোকার আক্রমণে পথে বসা ছাড়া আর উপায় নাই।

এ বিষয়ে উপসহকারী কৃষি অফিসার রফিকুল আলম বলেন- উপজেলার প্রত্যক ইউনিয়নে ধান ভাল হয়েছিল। তবে পোকার আক্রমনে কিছু কিছু ধান নষ্ট হয়েছে। তবে বিষয়টি শুনার সাথে সাথে তিনি ধান ক্ষেতে গিয়ে কৃষকদের পোকা দমনে পরামর্শ দিয়ে যাচ্ছে। আর বাকী ধান যেন পোকার আক্রমণ থেকে রক্ষা পায় সে দিকে কৃষি কর্ম কর্তারা সজাগ দৃষ্টি রেখেছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •