সংবাদদাতা:
দলের সভানেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তথা কেন্দ্রীয় নির্দেশনার পর অন্যান্য উপজেলার মতো কক্সবাজারের উখিয়ায় মতবিনিময় এবং টেকনাফ উপজেলা কমিটির সাথে বর্ধিত সভায় অংশ নিয়েছে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকসহ সাংগঠনিক টিমের নেতৃবৃন্দ। শনিবার সকাল বিকেল আলাদাভাবে এ দু’টি সভা অনুষ্ঠিত হয়।

২৬ অক্টোবর বিকেলে উখিয়ার সোনারপাড়া এলাকায় উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ ও ইউনিয়ন সভাপতি-সম্পাদকের সাথে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি রাজা শাহ আলমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি এড.সিরাজুল মোস্তফা।

প্রধান বক্তার বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মেয়র মুজিবুর রহমান। এছাড়া জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক মাহবুবুল হক মুকুল, এডভোকেট রনজিত দাশ, সাংস্কৃতিক সম্পাদক এড.তাপস রক্ষিত, জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য সাবেক এমপি আবদুর রহমান বদি, উখিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি উপজেলা চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ হামিদুল হক চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির চৌধুরী, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নুরুল হুদাসহ ইউনিয়নের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকগন বক্তব্য রাখেন।

এসময় জেলা সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক বলেন, আওয়ামী লীগ সরকারী দল হিসেবে টানা তিন মেয়াদে রাষ্ট্র ক্ষমতায়। তাই দলের ভেতরে কোন ধরণের গ্রুপিং বিভাজন সৃষ্টি করা চলবেনা। কারন গ্রুপিং থাকলে দল যেমন ক্ষতিগ্রস্থ হয় তেমনি সরকারের উন্নয়নকর্মকান্ডও বাধাগ্রস্থ হয়। জনগন উন্নয়ন সম্পর্কে জানতে পারেনা। এতে দল এবং সরকার দুটোই এক সাথে প্রশ্নবিদ্ধ হয়ে পড়ে। সুতরাং এখনো সময় আছে-অন্তত: দলের বৃহৎ স্বার্থে বিরোধ ভুলে গিয়ে তৃনমূলে দলকে সু-সংগঠিত করুন।

এর আগে সকাল ১১টায় হোয়াইক্যং প্রিতম প্লাজা কমিউনিটি সেন্টারে টেকনাফ উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি সাবেক সাংসদ অধ্যাপক মোহাম্মদ আলীর সভাপতিত্বে বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন, কক্সবাজার জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি এড.সিরাজুল মোস্তফা। প্রধান বক্তা ছিলেন কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মেয়র মুজিবুর রহমান।

বর্ধিত সভার শুরু কোরআন তেলাওয়াত করেন টেকনাফ উপজেলা আওয়ামীলীগের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক আনোয়ার ইসলাম। জেলা নেতৃবৃন্দ ও উপজেলা নেতৃবৃন্দের উপস্থিতিতে বর্ধিত সভায় বিভিন্ন ইউনিয়ন ও পৌরসভা থেকে আগত সভাপতি ও সম্পাদকগন ইউনিয়নের সাংগঠনিক বিষয় নিয় বক্তব্য রাখেন এবং সাংগঠনিক সুবিধা ও অসুবিধা দলীয় কোন্দলের কথা তুলে ধরেন। জেলা নেতৃবৃন্দ নেতাকর্মীদের বক্তব্যগুলো শোনে বিভিন্ন দিকনির্দেশনা প্রদান করেন। পরবর্তীতে কক্সবাজার জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মেয়র মুজিবুর রহমান উপস্থিত জেলা আওয়ামীলীগের নেতৃবৃন্দ ও উপজেলা আওয়ামীলীগের নেতৃবৃন্দের পরামর্শক্রমে উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের মেয়াদেত্তীর্ণ কমিটির সম্মেলন করার ঘোষানা দেন। টেকনাফ উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক নুরুল বশরের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত বর্ধিত সভায় বক্তব্য রাখেন, জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক মাহবুবুল হক মকুল, এডভোকেট রনজিত দাশ, উখিয়া-টেকনাফের সাবেক সাংসদ আলহাজ্ব আবদুর রহমান বদি, জেলা মহিলা আওয়ামীলীগ সভাপতি এমপি কানিজ ফাতেমা মোস্তাক, জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি আলহাজ্ব শফিক মিয়া, রাজা শাহ আলম, জেলা আওয়ামী লীগ নেতা এমএ মনজুর, আবু তাহের আজাদ, মিজানুর রহমান, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতি জাফর আলম চৌধুরী, পৌর মেয়র মোহাম্মদ ইসলামসহ জেলা, উপজেলা পৌর ও ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •