মো. নুরুল করিম আরমান, লামা প্রতিনিধি :

বান্দরবানের লামা উপজেলায় মো. আলমগীর হোসেন (৩৫) নামের এক বিদ্যুৎ কর্মচারী গলায় ফাঁস লাগিয়ে  আত্মহত্যা করেছেন। শনিবার দুপুরে লামা পৌরসভা এলাকার মধুঝিরিস্থ তার ভাড়া বাসায় এ ঘটনা ঘটে। আলমগীর হোসেন বগুড়া জেলার শেরপুর থানার উলিপুর গ্রামের বাসিন্দা আবুল হোসেনের ছেলে। তার এক স্ত্রী ও দুই ছেলে মেয়ে রয়েছে। প্রাথমিকভাবে আতœহত্যার কারণ জানা যাযনি। তবে মৃত্যুর জন্য কেউ দায়ী নয়, এমন একটি সিরকুট রেখে যান আলমগীর হোসেন।

সূত্র জানায়, আলমগীর হোসেন লামা বিদ্যুৎ বিতরণ কেন্দ্রে সাহায্যকারী পদে কর্মরত ছিলেন। স্ত্রী ও দুই ছেলে মেয়েকে নিয়ে পৌরসভা এলাকার মধুঝিরিস্থ একটি ভাড়া বাসায় বসবাস করতেন। শনিবার দুপুর ২টার দিকে ঘরের একটি কক্ষে গলায় ফাঁস দিলে স্বজনেরা দ্রুত উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। সেখানে দায়িত্বরত চিকিৎসক আলমগীর হোসেনকে মৃত ঘোষণা করেন।

এ বিষয়ে লামা বিদ্যুৎ বিতরণ কেন্দ্রের আবাসিক প্রকৌশলী গীতি বসু চাকমা জানান, শনিবার সকালে আলমগীর হোসেন অফিসে হাজিরা খাতায় স্বাক্ষর করে বাসায় চলে যান। পরে লোকমুখে আতœহত্যার কথা শুনে তাকে দেখতে যাই। কেন আতœহত্যা করেছেন তার কারণ জানা যায়নি। তবে মৃত্যুর জন্য কেউ দায়ী নয়, এমন একটি সিরকুট লিখে যান আলমগীর হোসেন।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে লামা থানা পুলিশের ডিউটি অফিসার টুম্পা চৌধুরী বলেন, লাশের প্রাথমিক সুরতহাল শেষে ময়নাতদন্তের জন্য বান্দরবান সদর মর্গে পাঠানো হয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •