মুহাম্মদ আবু সিদ্দিক ওসমানী :

কক্সবাজারের স্বনামধন্য জেলা প্রশাসক মোঃ কামাল হোসেনের তড়িৎ হস্তক্ষেপে জীবন-জীবিকার একমাত্র অবলম্বন বীচের থাকা ভ্যান গাড়িটি এক সপ্তাহ পর ফেরত পেয়েছে আকতার হোসেন (৬১)।

কক্সবাজার শহরের উত্তর কলাতলীর মৃত নুর আহমদের পুত্র আকতার হোসেন দীর্ঘ প্রায় ২০ বছর ধরে বীচে একটি ভ্যান গাড়ী নিয়ে খাবার বিক্রি করে আসছে। কক্সবাজার জেলা প্রশাসন আকতার হোসেনের ভ্যান গাড়িতে খাবার বিক্রেতা হিসাবে বৈধতা দিয়ে তাকে পর্যটন শাখা থেকে একটি পরিচয় পত্রও দেওয়া হয়। যার নম্বর-১৫১৩। আকতার হোসেনের অভিযোগ, বীচ কর্মীদের নিয়মিত অনৈতিক পাওনা মেটাতে না পারায় গত ১৯ অক্টোবর থেকে জনৈক বীচ কর্মী আকতার হোসেনের গাড়ী করে বিক্রি করা বীচের সুগন্ধা পয়েন্টের ওশান প্যারাডাইজ হোটেলের পশ্চিমে থাকা ভ্যান গাড়ীটির দরজা খুলতে দেয়নি। বরং আকতার হোসেনের গাড়ি হতে গ্যাসের সিলিন্ডারটি উক্ত বীচ কর্মী জোর করে নিয়ে যায়। এরপর থেকে ৫ কন্য সন্তানের জনক আকতার হোসেন তার জীবন জীবিকা’র একমাত্র অবলম্বন চালু রাখতে নাপেরে অসহায় হয়ে পড়ে। ষাটোর্ধ আকতার হোসেনের অসহায়ত্ব দেখে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এ বিষয়ে নিন্দার ঝড় উঠে। জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ কামাল হোসেন বিষয়টি জানতে পেরে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) মোহাম্মদ আল আমিন পারভেজকে শুক্রবার ২৫ অক্টোবর বিকেলে তাৎক্ষণিক বীচে পাঠালে তিনি ঘটনার বিষয়ে সত্যতা পান। তখন জেলা প্রশাসক মোঃ কামাল হোসেন আকতার হোসেনের ভ্যান গাড়ির দোকানটি দ্রুত খুলে দিতে নির্দেশ দেন। দীর্ঘ এক সপ্তাহ পর অসহায় আকতার হোসেন ভ্যান গাড়িতে থাকা খাবার দোকানটি খুলতে পেরে আকতার হোসেন যেন আকাশের চাঁদ হাতে পেয়েছে। আকতার হোসেন জেলা প্রশাসক মোঃ কামাল হোসেন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) মোহাম্মদ আল আমিন পারভেজ, আরটিভি’র কক্সবাজারস্থ সিনিয়র স্টাফ রিপোর্টার, সিনিয়র সাংবাদিক সাইফুর রহিম শাহীন সহ সংশ্লিষ্ট সকলের প্রতি আন্তরিক কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •