মোঃ জয়নাল আবেদীন টুক্কু, নাইক্ষ্যংছড়ি:
কক্সবাজারের রামু উপজেলার কচ্ছপিয়া ইউনিয়নের দোছড়ি ঢালার মুখ এলাকায় অগ্নিকান্ডে আহত দিলআরা বেগম (৪৫) টানা ৬ দিন মৃত্যুর সাথে যুদ্ধ করে মঙ্গলবার ( ২২ অক্টোবর) মৃত্যুর কাছে হেরে চলে গেলেন না ফেরার দেশে।

গত ১৭ অক্টোবর গভীর রাতে ঐ এলাকার জাফর আহমদের দোকান ও বসতঘর অগ্নিকান্ডে ভুস্মিভূত হয়। এতে ৫ বছরের এক শিশু আগুনে দগ্ধ হয়ে মারা যায়। এসময় দিলআরাসহ ৪ জন আহত হয়। ক্ষতিগ্রস্ত বাড়ির মালিক জাফরের স্ত্রী অগ্নিদগ্ধ দিলআরা চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন। ইন্নালিল্লাহে ওয়াইন্নাইলায়হে রাজিউন। এদিন
রাত ১০ টায় জানাযার নামজ শেষে মরুহুমের গ্রামের বাড়ি ছোট জাংছড়ি বালুবাসা কবরস্থানে দাফন করা হয়

এদিকে ২২ অক্টোবর বেলা ১২ টায় কচ্ছপিয়া ইউনিয়ন পরিষদ মিলনায়তনে অনুষ্ঠানিক ভাবে অগ্নিকান্ডে নিহত ও ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের হাতে নগদ ১০ হাজার টাকা অার্থিক অনুদান দিয়েছেন কচ্ছপিয়ার চেয়ারম্যান আবু মোঃ ইসমাঈল নোমান।
অনুদান প্রদান কালে অন্যান্যদের মাঝে উপস্থিত ইউপির প্যানেল চেয়ারম্যান মোঃ নুরুল আবছার,মহিলা মেম্বার ইয়াছমিন আক্তার মুন্নি,জয়নাল আবেদীন মেম্বার,সচিব মিলটন,মোঃ ইসমাঈল প্রমুখ।
উল্লেখ্য এর আগে ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান নুরুল আলম কোম্পানী পুড়ে যাওয়া দোকান ঘর পরিদর্শন করে নিজ থেকে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারকে ৫ হাজার টাকা অর্থিক অনুদান দেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •