শাহেদ মিজান, সিবিএন:
কক্সবাজারের টেকনাফে পুলিশ ও অস্ত্রধারী ডাকাত দলের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ সেলিম প্রকাশ ছলিম (৩৪) নামে এক যুবক নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় পুলিশের তিন সদস্য আহত হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

গতকাল মঙ্গলবার দিবাগত রাত দেড়টার দিকে উপজেলার হোয়াইক্যং ইউনিয়নের চাকমারকুল এলাকায় এ বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে।

পুলিশ জানিয়েছে, গতকাল রাতে চাকমারকুল এলাকার কাদির হোসেনের ছেলে ছলিম ডাকাতকে আটক করা হয়। এর পর তার স্বীকারোক্তির ভিত্তিতে রাত দেড়টার দিকে হোয়াইক্যং ইউনিয়নের কেরুনতলী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পার্শ্ববর্তী এলাকায় অভিযান চালায় পুলিশ। সেখানে থাকা মাদক ও অস্ত্র উদ্ধার করতে অভিযানে গেলে আগে থেকে ওৎপেতে থাকা মাদক ব্যবসায়ী ও ছলিম ডাকাতের সহযোগীরা পুলিশ সদস্যদের লক্ষ্য করে গুলি ছুড়তে শুরু করে। পরে পুলিশও আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি চালায়।

এতে উভয়পক্ষের গোলাগুলিতে পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) আরিফুর রহমান, কনস্টেবল আব্দুর শুক্কুর ও মেহেদী গুরুতর আহত হয়। এ ঘটনায় মাদক ব্যবসায়ী আটক ছলিম গুলিবিদ্ধ হয়। পরে পুলিশ সদস্যরা তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

অভিযানের সত্যতা নিশ্চিত করে (ওসি) প্রদীপ দাশ জানান, নিহত যুবক ডাকাত দলের সক্রিয় সদস্য এবং মাদক কারবারে জড়িত। সে টেকনাফ উপজেলায় যে সমস্ত ডাকাতি, সন্ত্রাসী ও মাদক চোরাচালান হয় তার সঙ্গে জড়িত ছিল।

তিনি দাবি করেন, ‘ঘটনাস্থল থেকে দেশীয় তৈরি ১টি এলজি,৬ রাউন্ড তাজা কার্তুজ,৭ রাউন্ড গুলির খোসা ও ১ হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার করেছে পুলিশ।

পুলিশের এই কর্মকর্তা জানান, অপরাধীদের নির্মূল করতে পুলিশ সদস্যদের কঠোর অভিযান অব্যাহত থাকবে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •