ইমাম খাইর, সিবিএনঃ

ওমর মিয়া নামের (ছদ্ম নাম) রোহিঙ্গা যুবককে ছেলে সাজিয়ে ভোটার তালিকা হালনাগাদে ছবি তোলতে গিয়ে কথিত পিতাসহ দুজনকে আটক করা হয়েছে।
পরে দুই জনকে ১ মাস করে বিনাশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করেন রামু উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ও নির্বাহী ম্যাজেস্ট্রেট প্রণয় চাকমা।
মঙ্গলবার (২২ অক্টোবর) রামু উপজেলার রশিদ নগর ইউনিয়ন থেকে তাদের আটক করা হয়েছে।
কথিত পিতা শামসুল আলম (৫০) রামুর রশিদ নগরের ধলিরছড়া উল্টাখালির বাসিন্দা। তিনি ওই এলাকার মৃত মোহাম্মদ কালুর পুত্র।
ভোটার হওয়ার জন্য জমা করা জন্ম নিবন্ধন সনদে ওমর মিয়া নামের যে ছেলে দেখানো হয়েছে ওই নামে শামসুল আলমের কোন ছেলে নাই।
তবে, ওমর ফারুক নামের একজন ছেলে রয়েছে শামসুল আলমের। যে আগেই ভোটার হয়েছে। যার ভোটার নম্বর -২৮৪৪৫৩৮২২৯।
বিষয়টি আগেভাগে তথ্য পৌঁছে যায় সংশ্লিষ্ট এলাকায় দায়িত্ব পালনকারী একটি গোয়েন্দা সংস্থার প্রতিনিধির কাছে। তিনি ঘটনাস্থলে গিয়ে হাতেনাতে ধরেন কথিত পিতাসহ রোহিঙ্গা যুবককে। বাংলাদেশী দালালসহ দুই প্রতারককে তুলে দেন সংশ্লিষ্ট নির্বাচন কর্মকর্তার হাতে।
এ প্রসঙ্গে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ও নির্বাহী ম্যাজেস্ট্রেট প্রণয় চাকমা বলেন, কোনভাবেই রোহিঙ্গা ভোটার হওয়ার সুযোগ নাই। প্রশাসন এ বিষয়ে খুবই তৎপর। রোহিঙ্গাদের ভোটার হতে সহায়তাকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে।
এইজন্য সবার সজাগ দৃষ্টি ও সহযোগিতা কামনা করেছেন ইউএনও প্রণয় চাকমা।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •