নুরুল কবির , বান্দরবান:

বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার ঘুমধুম ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে জালভোট দেয়াকে কেন্দ্র করে দু পক্ষের সমর্থকদের মধ্যে মারামারির ঘটনা ঘটেছে। এ সময় বিজিবির গুলিতে একজন নিহত হয়েছে। একই ঘটনায় গুলিবিদ্ধ হয়ে আহত হয়েছে ১জন। পরে তিনিও হাসপাতালে মারা যান।

আজ সোমবার (১৪ অক্টোবর) বিকাল সোয়া ৩টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। ইউনিয়নের ৮ নং ওয়ার্ডের ফাত্রাঝিরি ভোটকেন্দ্রে জালভোট দেয়াকে কেন্দ্র করে মেম্বার প্রার্থী আজমত আলী ও বাবুল কান্তি তংচঙ্গ্যার সমর্থকদের মধ্যে কেন্দ্রের সামনে বাকবিতন্ডা ও মারামারি হয়। এসময় পরিস্থিতি সামাল দিতে গিয়ে কেন্দ্রের পাশে নিয়োজিত বিজিবির সদস্যরা গুলি ছুড়ে। এসময় বাবুল কান্তি তংচঙ্গ্যার সমর্থক মংকিসা তঞ্চঙ্গা (৪৫) পিতা- কেলাও তঞ্চয়ঙ্গা নিহত হয়। একই ঘটনায় আহত হয়েছে অংচাই মং তংচঙ্গ্যা (৫৫), পিতা- শৈ¤্রা অং তঞ্চঙ্গা। ঘটনার পর পর আহত ব্যক্তিকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে নিয়ে যায় বিজিবির একটি দল। তবে হাসপাতালে নেয়ার পথে তার মৃত্যু হয়।

বাবুল কান্তি চাকমার সমর্থকদের অভিযোগ, আজমত আলীর সমর্থকরা জালভোট দিচ্ছিল। তাদের বাধা দিলে মারামারি বেধে যায়। এসময় বিনা উষ্কানিতে বিজিবি গুলি চালালে ঘটনাস্থলে একজনের মৃত্যু হয়।

এ বিষয়ে ওই কেন্দ্রে নিয়োজিত প্রিজাইডিং অফিসার এমদাদুল্লাহ মো: উসমান বলেন, সকাল থেকে শান্তিপূর্ণভাবে ও উৎসব মূখর পরিবেশে ভোটগ্রহণ হয়েছে। বিকাল ৩টার পর কেন্দ্রের বাইরে হট্টগোল শুরু হয়। ঘটনার পর তারা নিজেরাও নিরাপত্তাহীনতায় রয়েছে। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত পুলিশ ও বিজিবিসহ আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী ঘটনাস্থল নিয়ন্ত্রণ নিয়েছে। ঘটনাস্থল পরিদর্শণ করেছেন ম্যাজিষ্ট্রেটসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা।

এদিকে ঘটনার পর কেন্দ্র ও আশপাশের এলাকায় চরম আতংক ছড়িয়ে পড়ে। অপেক্ষমান ভোটারসহ সাধারণ মানুষ ছুটাছুটি করতে থাকে। হতাহতের পরিবারের লোকজন লাঠিসোটা নিয়ে রাস্তায় বিক্ষোভ করে।

এদিকে উপজেলা রির্টানিং অফিসার আবু জাফর মো: ছালেহ জানান- কেন্দ্রের ভিতরে কোন বিশৃঙ্খলা হয়নি। তাই কেন্দ্রের ফলাফল যথারীতি গণনা করা হচ্ছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •