সংবাদ বিজ্ঞপ্তি :

শুভ প্রবারণা পূর্ণিমা উপলক্ষে কক্সবাজার পৌরবাসীকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও কক্সবাজার পৌরসভার মেয়র মুজিবুর রহমান। এ উপলক্ষে সংবাদপত্রে প্রেরিত এক বিবৃতিতে জননেতা মেয়র মুজিবুর রহমান বলেন, মহামতি বুদ্ধের জীবনের প্রতিটি ঘটনা পুর্ণিমা কেন্দ্রিক। তাঁর জন্ম, গৃহত্যাগ, বুদ্ধত্ব ও মহাপরিনির্বাণ লাভ, বুদ্ধের প্রথম ধর্ম প্রচারের দিন সবই পুর্ণিমায়। তাই বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীদের প্রধান সব ধর্মীয় উৎসব হয় পুর্ণিমা কেন্দ্রিক।

আষাঢ়ী পুর্ণিমা থেকে আশ্বিনী পুর্ণিমা পর্যন্ত তিন মাস বর্ষাব্রত পালনের শেষ দিন এটি। প্রবারণা মানে ভুল-ত্রুটির নির্দেশ, আশার তৃপ্তি, অভিলাষ পূরণ ও ধ্যান শিক্ষা সমাপ্তি। সকল প্রকার ভেদাভেদ গ্লানি ভুলে গিয়ে কলুষমুক্ত হওয়ার জন্য ভিক্ষুসংঘ পবিত্র সীমা ঘরে সম্মিলিত হয়ে একে অপরের নিকট দোষ স্বীকার করেন। নিজের দোষ স্বীকারের মধ্যে মহত্ত্বতা আছে তা বৌদ্ধ ভিক্ষুরা দেখাতে সমর্থ হন।

আভিধানিক বিচারে প্রবারণার অর্থ হলো-বরণ করা। অর্থাৎ সকল প্রকার অকুশল বা পাপকর্ম বর্জন বা বারণ করে কুশলকর্ম বা পূণ্যকর্ম সম্পাদন বা বরণ করার শিক্ষা দেয় শুভ প্রবারণা।

বৌদ্ধধর্মে প্রবারণা পূর্ণিমার তাৎপর্য প্রবারণা বৌদ্ধদের কাছে এক অবিস্মরণীয় দিন। আষাঢ়ী পূর্ণিমায় বর্ষাব্রত অধিষ্ঠান করে আশ্বিনী পুর্ণিমায় যে বর্ষাবাস সমাপ্ত হয় তাকে পূর্বকার্তিকী প্রবারণা বলে। শুভ প্রবারণা উপলক্ষে জাতি ধর্ম নির্বিশেষে সমগ্র কক্সবাজার পৌরবাসীকে জানাই মৈত্রীময় শুভেচ্ছা। সেইসাথে মহামতি গৌতম বুদ্ধের মূলমন্ত্র অনুসারে বলতে হয়-“সব্বে সত্তা সুখিতা ভবন্তু” অর্থাৎ জগতের সকল প্রাণী সুখি হউক…

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •