চকরিয়া পৌরসভায় বাস্তবায়িত হচ্ছে ৩১ উন্নয়ন প্রকল্পের কাজ

এ কে এম ইকবাল ফারুক, চকরিয়া:

একের পর এক দৃশ্যমান উন্নয়নে পাল্টে যাচ্ছে কক্সবাজারের চকরিয়া পৌরসভার নয়টি ওয়ার্ডের দৃশ্যপট। চকরিয়া পৌরসভার সফল মেয়র আলমগীর চৌধূরীর আন্তরিক প্রচেষ্ঠায় পৌর এলাকার ৯টি ওয়ার্ডে ৭৬ কোটি টাকা ব্যয়ে বাস্তবায়িত হচ্ছে ৩১টি প্রকল্প। বিশ্বব্যাংকের সহায়তাপুষ্ট এমজিএসপি প্রকল্পের আওতায় বাস্তবায়িত হচ্ছে এসব উন্নয়ন প্রকল্প।

প্রকল্প সমুহের মধ্যে রয়েছে, পৌরসভার ৫ নম্বর ওয়ার্ডের করাইয়্যাঘোনা হোসেন চেয়ারম্যান বাড়ি থেকে মাষ্টার সিরাজ আহমদ বাড়ি পযন্ত আরসিসি সড়ক নির্মাণ, একই ওয়ার্ডের করাইয়্যাঘোনা কালু মাঝি বাড়ি থেকে মগপাড়া পর্যন্ত লাইটিংসহ আরসিসি সড়ক নির্মাণ, ৬ নম্বর ওয়ার্ডের করাইয়্যাঘোনা ওমর বাড়ি থেকে আবদুল হাকিমের বাড়ি হয়ে মৌলভী মঞ্জুর আলমের বাড়ি পর্যন্ত লাইটিংসহ আরসিসি সড়ক নির্মান, ৯ নম্বর ওয়ার্ডের আব্বাছ মাষ্টার বাড়ি থেকে বলাগুল মুমিন মাদাসা পর্যন্ত সড়ক নির্মান, ৮ নম্বর ওয়ার্ডের চিরিংগা ষ্টেশন পাড়া এলাকায় লাইটিংসহ আরসিসি সড়ক নির্মাণ, ৭ নম্বর ওয়ার্ডের বিনামারা ঈদ্দাপাড়া মোস্তাাক আহমদের দোকান হতে নুরুল কবির বাড়ি পর্যন্ত লাইটিংসহ সড়ক নির্মাণ, ২ নম্বর ওয়ার্ডের সাব-রেজিষ্টার অফিস থেকে হালকাকারা বেড়িবাঁধ পযন্ত লাইটিংসহ ড্রেন নির্মাণ, ৪ নম্বর ওয়ার্ডের স্বপ্নপূরি কালভার্ট থেকে খোদারকুম পর্যন্ত আরসিসি ড্রেন নির্মাণ, ১ নম্বর ওয়ার্ডের ঘনশ্যাম বাজার থেকে সোবাহানিয়াকুম পর্যন্ত আরসিসি ড্রেন নির্মাণ, ৭ নম্বর ওয়ার্ডের পালাকাটা কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ থেকে আবু সালামের দোকান পর্যন্ত ড্রেন নির্মাণ, ৪ নম্বর ওয়ার্ডের ভরামুহুরী হাজীপাড়া সড়ক লাইটিংসহ আরসিসি ড্রেন নির্মাণ, ৫ ও ৬ নম্বর ওয়ার্ডের মগবাজার মহিলা মাদ্রাসা থেকে জাহাঙ্গীর সিকদারের বাড়ি পর্যন্ত লাইটিংসহ আরসিসি সড়ক উন্নয়ন, ৬ ও ৭ নম্বর ওয়ার্ডের মগবাজার কালভার্ট থেকে মাছঘাট পর্যন্ত লাইটিংসহ আরসিসি সড়ক উন্নয়ন।

এছাড়া ১, ২ ও ৮ নম্বর ওয়ার্ডের কোচপাড়া আরকান সড়কের মাথা হতে মাতামুহুরী সেতু হয়ে জালিয়াপাড়া পর্যন্ত শহর রক্ষাবাঁধের উপর লাইটিংসহ আরসিসি সড়ক উন্নয়ন, ৮ নম্বর ওয়ার্ডের এশিয়ান হাসপাতাল থেকে বাঁশঘাট ষ্টেশন পর্যন্ত লাইটিংসহ আরসিসি সড়ক উন্নয়ন, ৯ নম্বর ওয়ার্ডের রাজধানী পাড়া দুবাই মোজাম্মেলের বাড়ি হতে মৌলভীপাড়া জামে মসজিদ পর্যন্ত লাইটিংসহ আরসিসি সড়ক উন্নয়ন, ৭ নম্বর ওয়ার্ডের মৌলভীরকুম বাজার থেকে পালাকাটা বার আউলিয়া মসজিদ হয়ে লাল মিয়া সওদাগরের বাড়ি পর্যন্ত লাইটিংসহ আরসিসি সড়ক উন্নয়ন, ৩ নম্বর ওয়ার্ডের বাটাখালি শহীদ আবুল কালাম সড়কে লাইটিংসহ সড়ক উন্নয়ন, ৮, ৪ ও ৬ নম্বর ওয়ার্ডের আরকান সড়কের সমিতি মার্কেট থেকে বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় সড়ক হয়ে হাসপাতাল পাড়া, এবং বজেন্দ্র মহাজান বাড়ি, খোদারকুম হয়ে ক্যামব্রিয়ান স্কুল থেকে বাস টার্মিনাল রিয়াজুল জন্নাত মসজিদে পর্যন্ত লাইটিংসহ আরসিসি সড়ক উন্নয়ন এবং গ্রামীণ ব্যাংক থেকে সার্ভ অফিস হয়ে ভাঙ্গারমুখ চক্ষু হাসপাতাল পর্যন্ত লাইটিংসহ আরসিসি সড়ক উন্নয়ন, ৭ নম্বর ওয়ার্ডেরর্ চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়ক হতে সাংসদ জাফর আলমের বাড়ি হয়ে পালাকাটা জেটি রোড় পর্যন্ত লাইটিংসহ আরসিসি সড়ক উন্নয়ন, ৬ ও ৭ নম্বর ওয়ার্ডের মৌলভীরকুম বাজার হতে মগবাজার পর্যন্ত এবং নিজপানখালি স্কুল থেকে বড়ুয়াপাড়া শ্মাশান পর্যন্ত এবং বড়ুয়াপাড়া মন্দিরপাড়া সড়ক লাইটিংসহ আরসিসি সড়ক উন্নয়ন।

এছাড়া ২ নম্বর ওয়ার্ডের চকরিয়া পাইলট হাই স্কুল জামে মসজিদ হতে ওয়েষ্টার্ন প্লাজা মার্কেট পর্যন্ত সড়ক লাইটিং ও ড্রেনসহ আরসিসি দ্বারা উন্নয়ন, ৩ নম্বর ওয়ার্ডের ফুলতলা থেকে তরছঘাট হয়ে ঘনশ্যাম বাজার পর্যন্ত সড়কে ড্রেনের উপর টাইলস স্থাপন ও লাইটিং নির্মাণ, পৌর বাসটার্মিনাল এস এ পরিবহন সামনে থেকে লামা-আলীকদম বাস ও জীপ ষ্টেশন হয়ে কলার আড়ৎ পর্যন্ত লাইটিংসহ আরসিসি ড্রেন নির্মাণ, ৩ ২ ও ১ নম্বর ওয়ার্ডের চকরিয়া পৌরসভার ১নং গেইট থেকে বেতুয়াবাজার সড়ক পর্যন্ত আরসিসি ড্রেন নির্মাণ, ৯ নম্বর ওয়ার্ডের পুকপুকুরিয়া বালাগুল মুবিন মাদ্রাসা হতে পশ্চিম পার্শ্বে বাঁধা খাল পর্যন্ত আরসিসি ড্রেন নির্মাণ, ২ নম্বর ওয়ার্ডের তেজেন্দ্র ডাক্তারের বাড়ি থেকে গ্রামার স্কুল পর্যন্ত আরসিসি ড্রেন নির্মাণ, বেতুয়াবাজার রাস্তা হতে সোবাহানিয়াকুম কালভার্ট পর্যন্ত লাইটিংসহ আরসিসি সড়ক উন্নয়ন, ২ নম্বর ওয়ার্ডের ওয়াপদা সড়ক লাইটিং ও ড্রেনসহ আরিসিসি সড়ক নির্মাণ এবং ৯ নম্বর ওয়ার্ডের বজেন্দ্র মহাজন গেইট থেকে অলিশাহ বাজার বাজার পর্যন্ত আরসিসি সড়ক উন্নয়নের কাজ।

চকরিয়া পৌর সভার মেয়র আলমগীর চৌধূরী বলেন, আমি মেয়র নির্বাচিত হওয়ার পর থেকে চকরিয়া পৌরসভার উন্নয়ন ও পৌর বাসির নাগরিক সুবিধা নিশ্চিত করতে আন্তরিকতার সাথে সব ধরনের প্রচেষ্ঠা চালিয়ে যাচ্ছি। আমার আন্তরিক প্রচেষ্ঠায় এ পর্যন্ত চকরিয়া পৌরসভায় অন্তত আড়াইশত কোটি টাকার বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্পের কাছ চলছে। ড্রেন, কালভার্ট, লাইটিং, সড়ক নির্মান ও সড়ক উন্নয়নসহ পৌর সভার বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্পে এসব টাকা ব্যয় হচ্ছে। চকরিয়া পৌরসভাকে একটি মডেল পৌরসভা হিসেবে রূপান্তর করে পৌর বাসির নাগরিক সুবিধা নিশ্চিত করতে আগামীতেও তার সব ধরনের প্রচেষ্ঠা অব্যাহত থাকবে বলে জানান পৌর মেয়র আলমগীর চৌধূরী।

সর্বশেষ সংবাদ

ক্যাসিনো থেকে মাসে ১০ লাখ টাকা নিতেন মেনন,সম্রাটের তথ্য

হিমছড়ি মেরিন ড্রাইভের পাশে আরো একজনের অজ্ঞাত লাশ

মেননের পার্টি ভাঙছে?

শীর্ষ বার্মাইয়া ডাকাত হাকিমের নেতৃত্বে দুই স্কুল ছাত্রী অপহরণ ও ডাকাতির অভিযোগ

ঢাকা উত্তর সিটির কাউন্সিলর রাজীব গ্রেফতার

‘ভিত্তিফলক’ ভাঙলেই কী একজন সালাহউদ্দিন আহমদকে মুছে ফেলা যায়!

‘পাকিস্তান-ভারত পরমাণু যুদ্ধ ২০২৫ সালে’

এই প্রথম মহাকাশে হাঁটলেন শুধু দুই নারী নভোচারী

রাক্ষুসে মাছ স্নেকহেড: দেখামাত্রই হত্যার নির্দেশ

টেকনাফে আটকের পর ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মাদক ব্যবসায়ী নিহত

উখিয়ার প্রয়াত চিত্রশিল্পী ফরিদ চৌধুরীর একক চিত্র প্রদর্শনী

বাড়িতে ঢুকে গৃহবধূকে জবাই করে হত্যা

কচ্ছপিয়ায় মোটর সাইকেলের ধাক্কায় আহত বৃদ্ধ মারা গেছে

ভুয়া বিল ভাউচারে স্কুলের ১১ লাখ টাকা আত্মসাত, প্রধান শিক্ষক ও করণিক কারাগারে

নুরুলের হ্যাট্রিকেও পূরণ হলো না কলা অনুষদের ফাইনালের স্বপ্ন

বীর মুক্তিযোদ্ধা বজলুর রহমানের ৫ম মৃত্যুবার্ষিকীতে স্মরণ করলেন সৈনিকলীগ নেতা মিজান

কক্সবাজার সিটি কলেজ আন্তঃ অনুষদ ফুটবল : ফাইনালে সমাজবিজ্ঞান ও বাণিজ্য অনুষদ

২ জন দক্ষ কম্পিউটার অপারেটর আবশ্যক

পুলিশ ও জনতার সেতুবন্ধনে অপরাধ প্রবণতা নির্মূল সম্ভব

কচ্ছপিয়ায় মোটর সাইকেলের ধাক্কায় বৃদ্ধ আহত