বশির উল্লাহ , মহেশখালী :

মহেশখালী উপজেলার মাতারবাড়িতে মসজিদ নিয়ে বিরোধের ঘটনায় পুলিশের সাথে স্থানীয় একটি গ্রুপের গুলি বিনিময় হয়েছে। এঘটনায় পুলিশ ৪ জন কে আটক করেছে । গত বৃহস্পতিবার গভীর রাতে মাতারবাড়ির সাইরার ডেইল এলাকার হানির বাপের মসজিদ কমিটি নিয়ে ঘটনার সুত্রপাত।

স্থানীয়রা জানান, বৃহস্পতিবার (৩ অক্টোবর) গভীর রাতে স্থানীয় ওর্য়াড আওয়ামীলীগ নেতা নজরুল ইসলামের গ্রুপ পুলিশের উপর ফাঁকা গুলি বর্ষণ করে । এতে আত্মরক্ষায় পুলিশ ও গুলি ছুড়ে। এঘটনায় এলাকায় মুহুর্তের মধ্যে আতংক ছড়িয়ে পড়ে।

স্থানীয় ইউপি মেম্বার হামেদ হোসাইন জানান, বৃহস্পতিবার রাত অনুমানিক সাড়ে ১১টায় গুলির শব্দে ঘুম ভেঙ্গে যায়। বাইরে গিয়ে দেখি পুলিশ ও স্থানীয়দের ছুটাছুটি । জানতে পারি হানিবর মসজিদ নিয়ে বিরোধ থাকার কারনে নজরুল গংরা এই ঘটনা ঘটিয়েছে ।

এব্যাপারে মহেশখালী থানার ওসি প্রভাব চন্দ্র ধর জানান, ঘটনার খবর পেয়ে দ্রুত পুলিশ পাঠিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ৪জনকে আটক করা হয়েছিলো তাদের মধ্যে বিরোধ মিমাংসার করার ফলে মুচলেকা দিয়ে ছেড়ে দেওয়া হয়। বর্তমান ওই মসজিদ পরিচালনা কমিটির মোঃ ছিদ্দিক আহমদ জানান, আমরা র্দীঘদিন ধরে হানির বাপের মসজিদটি পরিচালনা করে আসছি, প্রতি বছর বছর মসজিদ কমিটি সভা করে থাকে নজরুল গংদের বিরোধের কারনে এ বছর সভা পর্যন্ত করতে দেয়নি তারা। আমরা ঝগড়া বিবাদ চাই না শান্তি চাই , সাধারন মানুষের কথা চিন্তা করে আমরা নিজেদের বহু দিনের পুরানো জমি দান করে হেফাজ খানা সহ বিভিন্ন স্থাপনা করে মসজিদটি পুনাঙ্গ করে আসছি এই সময়ে তারা কমিটি ভেঙ্গে তারা নতুন কমিটি করে লুটপাট করার জন্য উঠে পড়ে লেগেছে। এদিকে এই ঘটনাকে ভিন্নখাতে প্রবাহিত করতে নজরুল গংরা পত্রিকায় বিভিন্ন ধরনের কুরুচিপূণ সংবাদ পরিবেশ করে সাধারন মানুষকে বিভ্রান্তি করার অপচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে ।

এব্যাপারে ৯নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগ সভাপতি নজরুল ইসলাম তার বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, আমরা মসজিদের জায়গা দান করেছি ফলে আমাদেরও মসজিদ কমিটিতে থাকা প্রয়োজন।

  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •