এ কে এম ইকবাল ফারুক, চকরিয়া:

তথ্য প্রযুক্তির অপ-ব্যবহার, ছেলেধরা গুজব, মাদক, জঙ্গিবাদ, কিশোর অপরাধ, ইভটিজিং, বাল্যবিয়েসহ নানা অপরাধের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ আওয়াজ “আমরাও হবো ফুলের মতো সবার জীবনে সুরভী ছাড়াবো” শীর্ষক এক সচেতনতামুলক সভা বৃহস্পতিবার (০৩ অক্টোবর) সকাল ১০টায় চকরিয়া পৌর সদরের ঐতিহ্যবাহি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান চকরিয়া কোরক বিদ্যাপীঠ মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয়।“দেশপ্রেম, পরিস্কার পরিচ্ছন্নতা নিজনিজ ধর্ম বিশ্বাসে অংগ এবং শৃংখলাই জীবন” এ প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে বিদ্যালয়টি এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

চকরিয়া কোরক বিদ্যাপীঠের প্রধান শিক্ষক নুরুল আখের এর সভাপতিত্বে ও সহকারী প্রধান শিক্ষক ফজলুল কাদেরের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সচেতনতামুলক সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন কক্সবাজারের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (চকরিয়া সার্কেল) কাজী মো. মতিউল ইসলাম। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন চকরিয়া উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি ও চকরিয়া কোরক বিদ্যাপীঠ পরিচালনা কমিটির সদস্য শওকত হোসেন, সাংবাদিক নাছির উদ্দিন, বিদ্যালয়ের সিনিয়র শিক্ষক নুরুল মোস্তফা ও আনচারুল করিম প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (চকরিয়া সার্কেল) কাজী মো. মতিউল ইসলাম বলেন, মাদক, কিশোর অপরাধ, ইভটিজিং, সন্ত্রাস ও জঙ্গীবাদ আজ আমাদের দেশের অন্যতম প্রধান সমস্যা। দলমত নির্বিশেষে সবাইকে ঐক্যবদ্ধভাবে এই সামাজিক সমস্যা নিরসনে এগিয়ে আসতে হবে।

তিনি আরও বলেন, দেশে একটি গোষ্ঠী গুজব ছড়িয়ে দেশকে অস্থিতিশীল করার পায়তারা চালাচ্ছে। আর তাদের এসব অপপ্রচারে বিশ্বাস করে অনেকে লোক আইন নিজের হাতে তুলে নিচ্ছে। প্রত্যেক সমাজের শিক্ষিত স¤প্রদায়ের উচিত এসব পথভ্রষ্ট মানুষকে সচেতন করা এবং গুজব প্রতিরোধে কার্যকর ভূমিকা পালন করা।

প্রধান অতিথি আরও বলেন, শিক্ষকরা বিদ্যালয়ে পাঠদানের পাশাপাশি শিক্ষার্থীদের গতিবিধি মনিটরিং করলে এবং অভিভাবকরা সচেতন হলে কোন শিক্ষার্থী বিপথগামী হবেনা। অভিভাবক এবং শিক্ষক একাট্টা হলে কোন শিক্ষা প্রতিষ্টানে ইভটিজিং ও বাল্যবিয়ের মতো অপরাধ সংগঠিত হবেনা। কারো সন্তান জড়িয়ে পড়বেনা জঙ্গিবাদসহ নানা অপরাধের সাথে। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হুশিয়ারী উচ্চারণ করে বলেন, স্কুল চলাকালীন সময়ে এবং সন্ধ্যার পর কোনো শিক্ষার্থীকে অযথা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সামনে ও রাস্তার মোড়ে মোড়ে ঘুরাফেরা করতে দেখা গেলে সঙ্গে সঙ্গে তাদের গ্রেফতার করা হবে। আর এ ব্যপারে শিক্ষক, অভিভাবক ও জনপ্রতিনিধিসহ সকলের সর্বাতœক সহযোগীতাও কামনা করেন তিনি।

অনুষ্ঠানে বিদ্যালয়ের সিনিয়র শিক্ষক হামিদা জান্নাত, আবুল বশর, মাজাহার হুসায়েন, এস এম নুরুন্নবী, মৌলানা আহমদ হোসাইন, শফিউল আলম, মো. সাকের, মো. নুরুল মোস্তফা, বাবু রঞ্জিত কুমার দে, নুরুল ইসলাম বাবুল, জাইদুল হক, বাবু মিঠু কান্তি দেব, মৌলানা নেছারুল হক, আবু রায়হান, জুবাইদা বেগম, খুরশিদ জাহান মুক্তা, কনিকা রানী দাশ, নজরুল ইসলাম, নুরুল ইসলাম, বাবু অলসন বড়ুয়া, নুরুল মোস্তফা, জয়শ্রী তালুকদার, এম, রিদুয়ানুল হক, নুরুল ইসলাম মনি, সুজিত বড়ুয়া, জাহেদুল ইসলাম, সাগরিকা বড়ুয়া, ফখরুদ্দীন চৌধুরী, মো, ইয়াছিন, মুজিবর রহমান রুকন, সৃজন মুহুরী, তারেকুল ইসলাম, লাভলী সিকদার ও আসমাউল হোসনাসহ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী, অভিভাবকগন ও সুশীল সমাজের লোকজন উপস্থিত ছিলেন।

  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •