প্রেস বিজ্ঞপ্তি :

পুলিশ সুপার ও কক্সবাজার জেলা ফুটবল রেফারিজ এসোসিয়েশনের সভাপতি এ বি এম মাসুদ হোসেন বলেছেন-ফুটবল এখনো বাংলাদেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় খেলা। বিশে^র এক নম্বর এই খেলাকে বাংলাদেশেও সমানে জনপ্রিয় করতে হবে। তিনি বলেন- মাঠে রেফারিদের কোন বন্ধু নেই। বিবেক, ন্যায়পরায়ণতা, বুদ্ধি দিয়ে রেফারিদের মাঠে বাঁশি বাজাতে হবে। কেননা একটি ভুল বাঁশি ফুটবলের ভাবমূর্তিকে মূহুর্তে ক্ষুন্ন করতে পারে। পেশাদারিত্ব দিয়ে কক্সবাজারের ফুটবল বিকাশে ভূমিকা রাখার রেফারিজদের প্রতি তিনি আহবান জানান। পুলিশ সুপার গতকাল ২৭ সেপ্টেম্বর সকালে কক্সবাজার বীরশ্রেষ্ঠ রুহুল আমিন স্টেড়িয়ামে জেলা ফুটবল রেফারিজ এসোসিয়েশনের ত্রি-বার্ষিক সাধারণ সভায় সভাপতির বক্তব্যে একথা বলেন। এতে অতিথি ছিলেন- অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রেজোয়ান আহমেদ, বাংলাদেশ ফুটবল রেফারিজ এসোসিয়েশনের কো-চেয়ারম্যান ইব্রাহিম নেছার, সাধারন সম্পাদক হাজি উসমান গণি, নির্বাহী সদস্য আবদুল হান্নান মিরন, ডি এস এ সহ-সভাপতি অধ্যক্ষ জসিম উদ্দিন, সাধারন সম্পাদক অনুপ বড়–য়া অপু। দপ্তর সম্পাদক ফরিদুল আলমের সঞ্চালনায় সভার শুরুতে সাধারন সম্পাদক ও অর্থ সম্পাদকের আর্থিক প্রতিবেদন পেশ করেন আবুল কাশেম কুতুবী ও তপন কুমার শর্মা।

এদিকে সাধারন সভার পরপরই নির্বাচন প্রক্রিয়া রুপ নেয় নাটকীয়তায়।্ ঢাকা থেকে আগত বাংলাদেশ রেফারিজ এসোসিয়েশনের কো- চেয়ারম্যান,সাবেক ফিফা রেফারী ইব্রাহিম নেছারের এক আহবানের প্রেক্ষিতে আকস্মিক সাধারন সম্পাদকের পদ থেকে সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দেন সাধারন সম্পাদক পদের প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী ছৈয়দ করিম। এতে নির্বাচনী আমেজ মূহুর্তে পাংশু হয়ে যায়। সাধারন সম্পাদক হিসেবে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় আবারো নির্বাচিত হন আবুল কাশেম কুতুবী। এরপর ছৈয়দ করিমের প্যানেল থেকে কোষাধ্যক্ষ, দপ্তর ও সদস্য পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতাকারী আরও তিন প্রার্থী নির্বাচন প্রক্রিয়া থেকে সরে দাঁড়ালে ১৪ টি পদে পূর্ণ প্যানেলে বিজয় লাভ করে বুলু-তপন-কুতুবী

পরিষদ। ফুটবল রেফারিজদের নির্বাচনী প্রক্রিয়ায় দায়িত্ব পালনকারী নির্বাচন কমিশনার জসিম উদ্দিন পরে নির্বাচিতদের নাম ঘোষণা করেন। ত্রি-বার্ষিক নির্বাচনে বিজয়ীরা হলেন-সহ-সভাপতি সুবীর বড়–য়া বুলু, সহ-সভাপতি তপন কুমার শর্মা, সাধারন সম্পাদক আবুল কাশেম কুতুবী, যুগ্ন-সম্পাদক ফরহাদুজ্জামান, কোষাধ্যক্ষ ফরিদুল আলম, দপ্তর সম্পাদক আহমদ কবির। নির্বাচিত আট সদস্য হলেন- এম গিয়াস উদ্দিন, মনিরুল ইসলাম, শফিউল আলম, সিরাজুল হক, শেখ মোহাম্মদ আবদুল্লাহ, মোঃ জিয়াউল হক, আলী হোসেন ও আনছারুল করিম।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •