মোহাম্মদ হোসেন, হাটহাজারী:
বিয়ে বাড়িতে মেহেমানদের আগমন, দুই পক্ষের লোকজন ভীড়, সারিবদ্ধ ভাবে টেবিলে খাবারের আয়োজন চলছিল।  হৈ-চৈ শুরু হলো। দু পক্ষের লোকজন পুলিশ দেখে ধাওয়া শুরু করেন।  হঠাৎ উপস্থিত নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সহকারী কমিশনার (ভুমি) সম্রাট খীসা।  জান্নাতুল মাওয়া(১৬) ‘স্যার, আমি এবার এসএসসি পরীক্ষা দিয়েছি। আমার বিয়ের বয়স হয়নি। আমি আরো পড়াশুনা করতে চাই। কিন্তু  আমার পরিবারের লোকজন জোর করে আমাকে বিয়ে দিচ্ছে। আমি বিয়ে করতে চাই না। আমার বাল্য বিয়েটি আপনি বন্ধ করুন’-এমন কথা জানিয়ে জান্নাতুল মাওয়া (১৬)  তাকে জোর করে পরিবার বিয়ে দেওয়ার কথা (ইউএনও) রুহুর আমিনকে অবহিত করেন তিনি।  সাথে সাথে বাল্যবিবাহ বন্ধ করার জন্য এসিল্যান্ডকে নির্দেশ দেন।

ঘটনাটি ঘটেছে শুক্রবার (২৭ সেপ্টেম্বর) দুপুরের দিকে হাটহাজারী উপজেলার গুমান মর্দন ইউনিয়নে।

ইউএনও সাংবাদিকদের বলেন,কলেজছাত্রী জান্নাতুল মাওয়া বয়স ১৬ না হয় ১৭ বছর হবে।   সে হাটহাজারী সরকারি কলেজের উচ্চমাধ্যমিক প্রথম বর্ষের ছাত্রী।  এ ঘটনায় মেয়ের পরিবারের কাছ থেকে ৩০ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট। ১৮ বছর হওয়ার আগে মেয়ের বিয়ে দেবেন না বলে মুচলেকাও দিয়েছেন তাঁরা।’

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •