হেলাল উদ্দিন, টেকনাফ:
নাফনদী সীমান্ত এলাকায় ইয়াবা পাচারকারীদের সাথে বিজিবির ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ২ পাচারকারী নিহত ও বিজিবির ৩ সদস্য আহত হয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে বিপুল পরিমাণ ইয়াবা, অস্ত্র ও গুলি উদ্ধার করা হয়েছে।
টেকনাফ ২ বিজিবি অধিনায়ক লেঃ কর্নেল মোঃ ফয়সাল হাসান খান জানান, শুক্রবার (২৭ সেপ্টেম্বর) ভোর রাতে টেকনাফের নাফনদীর হ্নীলা নাটমোরাপাড়ার জালিয়াপাড়া সীমান্তে বিজিবি টহল দলের সদস্যরা ৪/৫ জন ব্যাক্তিকে একটি হস্ত চালিত নৌকা নিয়ে উপকুলে প্রবেশ করতে দেখে নৌকাটি থামানোর জন্য সংকেত দিলে পাচারকারীরা বিজিবির সংকেত না মেনে পালানোর চেষ্টা করে। এরপর বিজিবিও তাদের ধাওয়া করে একপর্যায়ে মাদক পাচারকারীরা বিজিবি সদস্যদের লক্ষ্য করে এলোপাতাড়ী গুলি বর্ষন শুরু করে। এতে বিজিবির তিন সদস্য গুরুতর আহত হয়। পরে আত্মরক্ষার্থে বিজিবিও পাল্টা গুলি চালায়। কিছুক্ষন পর পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে এলে ঘটনাস্থলে ২ জন ব্যাক্তিকে গুলিবিদ্ধ হয়ে পড়ে থাকতে দেখে বিজিবি সদস্যরা তাদের উদ্ধার করে টেকনাফ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তার উন্নত চিকিৎসার জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতালে প্রেরন করে। সেখানে পৌছার পর ডাক্তার তাদের মৃত ঘোষনা করে।
তবে তাদের নাম ঠিকানা এখনো জানাতে পারেনি বিজিবি।
তিনি বলেন, ঘটনাস্থল তল্লাশী করে ৭০ হাজার ইয়াবা, দেশীয় তৈরী ১টি লম্বা বন্দুক, ২ রাউন্ড তাজা কার্তুজ, ১টি ধারালো কিরিচ উদ্ধার করে।

তিনি আরো বলেন, টেকনাফ সীমান্ত উপকুল ব্যবহার করে মাদক পাচারে জড়িত অপরাধীরা ফের সক্রিয় হয়ে তাদের অপকর্ম অব্যাহত রাখার চেষ্টা করছে।

তবে সেই অপচেষ্টা প্রতিরোধ করার জন্য সীমান্ত প্রহরী আমাদের বিজিবি সদস্যরা সদা প্রস্তুত রয়েছে। পাশাপাশি যে সমস্ত অপরাধীরা এখনো মাদক পাচারে জড়িত রয়েছে তাদেরকে আইনের আওয়তাই এনে কঠোর হস্তে দমন করার জন্য বিজিবি সদস্যদের কঠোর অভিযান অব্যাহত থাকবে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •